অন্যান্য

পুরস্কারে লাথি মেরে আজীবন নিষিদ্ধ বডিবিল্ডার জাহিদ

ঢাকা, ২৫ ডিসেম্বর – সম্প্রতি বাংলাদেশ বডিবিল্ডিং ফেডারেশনের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে পুরস্কার নেওয়ার পর উপস্থিত বিচারকদের সামনে লাথি মারা কাণ্ডে আজীবন নিষিদ্ধ হলেন বডিবিল্ডার জাহিদ হাসান শুভ। ২৩ ডিসেম্বর রাতে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের শেখ কামাল মিলনায়তনে বাংলাদেশ বডিবিল্ডিং ফেডারেশনের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এ ঘটনা ঘটে। মঞ্চ থেকে পুরস্কার নিয়ে নিচে নেমে সেই পুরস্কারে লাথি মারার একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। এরপরই এমন কাণ্ডের কারণে নিষিদ্ধ হলেন তিনি।

ওই প্রতিযোগিতায় ১১ জন বিচারক প্যানেলের ঘোষিত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী রূপা জেতেন জাহিদ। এই রায়ে সন্তুষ্ট হতে না পেরে তিনি পুরস্কারের মঞ্চেই ক্ষোভ প্রকাশ করেন। পুরস্কার নিয়ে মঞ্চে নামার পর পুরস্কারে লাথি দিয়ে প্রতিবাদ জানান।

বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বইছে রীতিমতো। বাংলাদেশ শরীর গঠন ফেডারেশন এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে জরুরি সভা আয়োজন করে। সেই সভায় জাহিদকে আজীবন বহিষ্কারে সিদ্ধান্ত এসেছে।

রোববার সংশ্লিষ্ট ফেডারেশন প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এমনটিই জানিয়েছে। এ বিষয়ে ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বলেন, জাহিদের এমন কর্মকাণ্ডে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিলেন অডিটোরিয়ামের অন্য শরীর গঠনবিদরাও। আমাদের প্রতিযোগিতা চলাকালীন শৃঙ্খলাভঙ্গ করেছেন তিনি। ফলে খেলাধুলায় শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে আমরা তাকে আজীবন নিষিদ্ধ করেছি।

জাহিদের লাথি দিয়ে প্রতিবাদের দৃশ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে। তিনি এ আচরণের ব্যাখ্যাও দিয়েছেন। জাহিদ বলেন, আমি প্রথম হওয়ার যোগ্য। আমাকে প্রথম দেয়া হয়নি। বিচারকরা সঠিক রায় দেননি। এর প্রতিবাদে আমি এমন আচরণ করেছি।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
আইএ/ ২৫ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button