ইউরোপ

পুতিনের বিরুদ্ধে আইনি অভিযোগ রুশ রাজনীতিবিদের

মস্কো, ২৩ ডিসেম্বর – ইউক্রেনের সংঘাতকে বর্ণনা করার জন্য ‘যুদ্ধ’ শব্দটি ব্যবহার করার জন্য রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন সেন্ট পিটার্সবার্গের একজন রাজনীতিবিদ। তিনি পুতিনকে তার নিজের আইন ভঙ্গ করার অভিযোগ এনেছেন এবং প্রসিকিউটরদের তদন্ত করার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন।

পুতিন কয়েক মাস ধরে তার আক্রমণকে একটি ‘বিশেষ সামরিক অভিযান’ হিসাবে বর্ণনা করেছেন। এছাড়াও গত মার্চ মাসে একটি আইনে স্বাক্ষর করেছিলেন, যেখানে সশস্ত্র বাহিনী সম্পর্কে মিথ্যা তথ্য ছড়ানো এবং ইউক্রেন অভিযানকে ‘যুদ্ধ’ বলে অভিহিত করলে তাদের বিচারের মুখোমুখি হতে হবে। এজন্য অভিযুক্ত ব্যক্তিদের জরিমানা এবং কারাদণ্ডের বিধান বরা হয়েছিলো। তবে বৃহস্পতিবার তার স্বাভাবিক ভাষা থেকে সরে গিয়ে সংঘর্ষকে ‘যুদ্ধ’ বলে উল্লেখ করেছেন।

বৃহস্পতিবার পুতিন সাংবাদিকদের বলেছিলেন, আমাদের লক্ষ্য সামরিক সংঘাত দীর্ঘায়িত করা নয় বরং যত দ্রুত সম্ভব এই যুদ্ধের অবসান ঘটানো।

নিকিতা ইউফেরেভ, যিনি একজন বিরোধী কাউন্সিলর, তিনি বলেন, তার আইনি অভিযোগে কোনও কাজ হবে না তা ভাল করেই জানেন। তবে তিনি পুতিনের শাসন ব্যবস্থার দুর্নীতি প্রকাশ করার জন্য এটি দায়ের করেছিলেন।

তিনি বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, এই আইনের দ্বন্দ্ব ও অবিচারের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করার জন্য এটা করা আমার জন্য গুরুত্বপূর্ণ । কারন পুতিন যে আইনগুলো তৈরী এবং স্বাক্ষর করেন, কিন্তু তিনি নিজে পালন করেন না।

তিনি বলেন, আমি মনে করি আমরা এই বিষয়ে যত বেশি কথা বলি, তত বেশি লোকে তার সততা, তার নির্দোষতা এবং তার সমর্থন কম হবে।

একটি খোলা চিঠিতে দাখিল করা তার চ্যালেঞ্জে, ইউফেরভ রাশিয়ার প্রসিকিউটর জেনারেল এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে রুশ সেনাবাহিনীর কর্মকাণ্ড সম্পর্কে ভুয়া খবর ছড়ানোর জন্য আইনের অধীনে পুতিনকে দায়ী করতে আহ্বান জানিয়েছেন।

এদিকে, ইউফেরেভ রয়টার্সকে তার অবস্থান প্রকাশ না করতে বলেছিলেন। তিনি আরও অভিযোগ করেন, পুতিনের সমালোচকরা যারা প্রকাশ্যে যুদ্ধকে যুদ্ধ বলে অভিহিত করেছেন তাদের কঠোর শাস্তি ভোগ করতে হয়েছে।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
আইএ/ ২৩ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button