ব্যবসা

আদায় না হওয়া সুদ আয় দেখাতে পারবে ব্যাংক

ঢাকা, ২২ ডিসেম্বর – সুদের কিস্তি পরিশোধের সুবিধাপ্রাপ্ত মেয়াদী ঋণের ওপর চলতি বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত বকেয়া সুদ আয় হিসেবে দেখাতে পারবে ব্যাংক।

বৃহস্পতিবার (২২ ডিসেম্বর) বিষয়টি জানিয়ে ব্যাংকগুলোকে চিঠি দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

চিঠিতে জানানো হয়েছে, গত ১৮ ডিসেম্বর বাংলাদেশ ব্যাংকের জারি করা নোটিশ অনুযায়ী ঋণ পরিশোধ নীতি শিথিলের সুবিধাপ্রাপ্ত ঋণের বকেয়া সুদ আয়খাতে স্থানান্তর করা যাবে। সুবিধাপ্রাপ্ত ঋণের সম্ভাব্য আদায় ঝুঁকি বিশ্লেষণ করে ২০২২ সালের আরোপিত সুদ নিয়ম অনুযায়ী আয়খাতে স্থানান্তর করা যাবে। তবে পুনঃতফসিলকৃত ঋণ, পুনর্গঠিত ঋণ বা এককালীন এক্সিট সুবিধাপ্রাপ্ত ঋণের বিপরীতে আরোপিত সুদ নগদ আদায় ছাড়া আয়খাতে স্থানান্তর করা যাবে না।

ব্যাংকগুলোকে সুবিধাপ্রাপ্ত ঋণের বিপরীতে অতিরিক্ত ২ শতাংশ জেনারেল প্রভিশন সংরক্ষণ করতে হবে। সিএমএসএমই খাতের সুবিধাপ্রাপ্ত ঋণের বিপরীতে অতিরিক্ত ১ শতাংশ জেনারেল প্রভিশন সংরক্ষণ করা যাবে। এই অতিরিক্ত প্রভিশন স্পেশাল জেনারেল প্রভিশন কোভিড-১৯ খাতে স্থানান্তর করতে হবে। পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত সংরক্ষিত প্রভিশন ছাড়া অন্য কোনো খাতে স্থানান্তর করা যাবে না।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা ইসলামী শরীয়াহ্ ভিত্তিক ব্যাংকগুলোও বিনিয়োগের ক্ষেত্রে অনুসরণ করবে। এ নির্দেশনা শিগগির কার্যকর হবে।

সূত্র: আরটিভি নিউজ
আইএ/ ২২ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button