দক্ষিণ এশিয়া

‘ভারতে জাতির পিতা দুজন’, বিজেপি নেতার স্ত্রীর মন্তব্যে ফের বিতর্ক

নয়াদিল্লি, ২১ ডিসেম্বর – ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আবারও ‘জাতির পিতা’ বলে মন্তব্য করে বিতর্কের মুখে পড়েছেন বিজেপি নেতা দেবেন্দ্র ফড়নবিসের স্ত্রী অমরুতা ফড়নবিস। তবে এবার ‘ভারতে দুজন জাতির পিতা’ রয়েছে দাবি করে কৌশলে মহাত্মা গান্ধীর নামও উল্লেখ করেছেন তিনি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, মহারাষ্ট্রের উপ-মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিসের স্ত্রী অমৃতা ফড়নবিস সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে ‘জাতির পিতা’ বলে অভিহিত করেছেন। কিন্তু তারপরে এই সম্মানের প্রকৃত অধিকারী মহাত্মা গান্ধীর নাম নেওয়ার জন্য কিছুটা কৌশল অবলম্বন করেন।

অমরুতা ফড়নবীস পেশায় ব্যাংকার, অভিনয়শিল্পী, সংগীতশিল্পী ও সামাজিক কর্মী। চলতি সপ্তাহে নাগপুরে লেখক সমিতি আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানের মঞ্চে তাকে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল, তিনি প্রধানমন্ত্রী মোদীকে ‘রাষ্ট্রপিতা’ বললে মহাত্মা গান্ধী কী হবেন?

 

জবাবে মারাঠি ভাষায় অমরুতা বলেন, মহাত্মা গান্ধী হলেন জাতির পিতা এবং মোদী-জি হলেন নতুন ভারতের পিতা। (ভারতে) দুজন জাতির পিতা রয়েছেন- একজন এই যুগের, একজন সেই যুগের।

অবশ্য অমরুতা যে এবারই প্রথম মোদীকে জাতির পিতা বলেছেন, তা নয়। ২০১৯ সালে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে এক টুইটবার্তায় তিনি বলেছিলেন, ‘আমাদের দেশের পিতা নরেন্দ্র মোদীকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাই, যিনি আমাদের সমাজের উন্নতির জন্য নিরলসভাবে কাজ করতে অনুপ্রাণিত করেন।’

 

সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্কিত পোস্টের কারণে প্রায়ই খবরের শিরোনাম হন অমরুতা। চলতি বছরের শুরুর দিকে শিবসেনায় বিদ্রোহের সময় মহারাষ্ট্রের তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরেকে নিয়ে কটাক্ষ করেছিলেন তিনি। এক টুইটে অমরুতা লেখেন, ‘‘এক যে ‘ছিল’ কপট রাজা’’…। এখানে ‘রাজা’ বলতে তিনি মূলত ঠাকরের দিকেই ইঙ্গিত করেছিলেন।

সূত্র: জাগোনিউজ
আইএ/ ২১ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button