জাতীয়

সাধারণ সম্পাদক পদে থাকা নিয়ে যা বললেন কাদের

ঢাকা, ২১ ডিসেম্বর – আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, তার ওপর দায়িত্ব দেয়া মানেই প্রধানমন্ত্রী ও বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা দলের আমানত তার ওপর অর্পণ করলেন। এ আমানত রক্ষা করা তার পবিত্র দায়িত্ব। সম্প্রতি সচিবালয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক পদে থাকা নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি।

আওয়ামী লীগের সভাপতি পদ নিয়ে জল্পনা-কল্পনা না থাকলেও সাধারণ সম্পাদক পদ নিয়ে রাজনীতির মাঠে চলছে তুমুল আলোচনা। কে হচ্ছেন আওয়ামী লীগের পরবর্তী সাধারণ সম্পাদক? কাদেরই হ্যাটট্রিক করছেন, নাকি নতুন মুখ আসছে আওয়ামী লীগে? বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ২২তম জাতীয় সম্মেলন নিয়ে কাদেরের সঙ্গে কথা হয় সময় সংবাদেরও।

আগামী শনিবার (২৪ ডিসেম্বর) হতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগের ২২তম জাতীয় সম্মেলন। এর মধ্যদিয়ে দলের হাল ধরতে আসবে ৮১ সদস্যবিশিষ্ট কার্যনির্বাহী কমিটি। আর এরই মধ্যে সম্মেলনকে ঘিরে সব ধরনের প্রস্তুতিও নিয়েছে ক্ষমতাসীনরা।

আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন নিয়ে সচিবালয়ে কয়েকটি গণমাধ্যমের সঙ্গে খোলামেলা কথা বলেছেন দলের সাধারণ সম্পাদক । অতীতের যে কোনো সময়ের চেয়ে এবারে কাউন্সিলে গণজাগরণ সৃষ্টি হবে দাবি করে তিনি বলেন, গঠনতন্ত্রে তেমন পরিবর্তন না হওয়ায় বাড়ছে না কমিটির কলেবর।

ওবায়দুল কাদের বলেন, অন্যান্য বারের সম্মেলনের চেয়ে এবার কাউন্সিলরদের উপস্থিতি হবে চোখে পড়ার মতো। আশা করি, এবারও একটি সুশৃঙ্খল সম্মেলন হবে। আমাদের সম্মেলনের জন্য গঠিত শৃঙ্খলা কমিটি সেভাবেই দায়িত্ব পালন করছেন।

কে হচ্ছেন আওয়ামী লীগের পরবর্তী সাধারণ সম্পাদক, এ নিয়ে রাজনীতির মাঠে আলোচনা তুমুল। বর্তমান সাধারণ সম্পাদক তৃতীয় মেয়াদে থাকছেন নাকি দল নতুন মুখ খুঁজছে? আর টানা তৃতীয় মেয়াদে দলের দায়িত্ব পালনে কতটা প্রস্তুত কাদের?

এমন প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের এ নেতা আরও বলেন, আমার ওপর দায়িত্ব মানেই প্রধানমন্ত্রী ও বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের আমানত আমার ওপর অর্পণ করলেন। এ আমানত রক্ষা করা আমার পবিত্র দায়িত্ব।

সাংগঠনিকভাবে নিজেকে সফল দাবি করলেও ব্যর্থতার কথাও স্বীকার করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক। তবে মহামারি করোনা না থাকলে সফলতার অংশ আরও বেশি হতে বলে মনে করছেন তিনি।

তিনি বলেন, একটা বছর যদি আমরা পুরো পেতাম তাহলে যে ব্যর্থটা হয়েছে, সেটা কাটিয়ে উঠতে পারতাম। করোনা মহামারির ওপর তো কারও হাত নেই। কাজেই সাফল্যের পাশাপাশি ব্যর্থতাও আছে।

সাধারণ সম্পাদক না হলেও ক্ষোভ নেই দাবি করে ওবায়দুল কাদের বলেন, দল যেখানে দায়িত্ব দেবে, সেখানেই কাজ করতে চান।

সূত্র: সময় টিভি
আইএ/ ২১ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button