দক্ষিণ এশিয়া

শিক্ষকের উদ্যোগে অসহায় ছাত্রের পরিবার পেলো ৫৫ লাখ রুপি

নয়াদিল্লি, ২১ ডিসেম্বর – কয়েক মাস আগেই মারা গেছেন স্বামী। সন্তানদের নিয়ে চরম দারিদ্র্যের মধ্যে পড়ে যান ভারতের কেরালা রাজ্যের গৃহবধূ সুভদ্রা (৩৬)। ঘরে খাবারও নেই। উপায়ান্তর না দেখে ছেলের শিক্ষকের কাছে খাবার কেনার জন্য ৫০০ রুপি সাহায্য চেয়েছিলেন। পরে শিক্ষক গিরিজা হরিকুমারের উদ্যোগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গণচাঁদার (ক্রাউডফান্ডিং) আহ্বান করা হলে গত রোববার পর্যন্ত সুভদ্রার পরিবারের জন্য ৫৫ লাখ রুপি উঠেছে।

সুভদ্রার স্বামী গত আগস্টে স্বামী মারা যান। এরপর থেকে সন্তানদের নিয়ে সমস্যায় ছিলেন সুভদ্রা। তিন সন্তানের মধ্যে ছোটটি সেরিব্রাল পালসিতে আক্রান্ত থাকায় সার্বক্ষণিক ছেলের পাশে থাকতে হয়, ফলে কোনো চাকরিতেও আবেদন করতে পারেননি।

শিক্ষক গিরিজা হরিকুমার অবশ্য তাঁর ছাত্র অভিষেককে বাবা মারা যাওয়ার পরপরই বলেছিলেন, সমস্যা থাকলে জানাতে। এতদিন না বললেও পরিস্থিতি প্রতিকূল দেখে গত শুক্রবার শিক্ষকের কাছে ৫০০ রুপি চান অভিষেকের মা। পরে শিক্ষক গিরিজা হরিকুমার ছাত্রের বাড়িতে যান এবং অবস্থা দেখে নিজে থেকে এক হাজার রুপি দেন। তবে হরিকুমার বলেন, ‘এই সামান্য অর্থে তাদের সমস্যার কোনো সমাধানই হবে না।’

ছাত্রের বাসা থেকে ঘুরে এসে ওই শিক্ষক ছাত্রের পরিবারের অবস্থা তুলে ধরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ক্রাউডফান্ডিং আহ্বান জানিয়ে প্রচারণা শুরু করেন। পোস্টে সুভদ্রার ব্যাংক একাউন্ট নম্বর জুড়ে দেন। দুদিন পরই তা ভাইরাল হয় এবং রোববার নাগাদ একাউন্টে ৫৫ লাখ রুপি জমা হয়।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
আইএ/ ২১ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button