ফুটবল

বিশ্বকাপ জয় উদযাপনে আর্জেন্টিনায় জাতীয় ছুটি ঘোষণা

বুয়েনোস আইরেস, ২০ ডিসেম্বর – ৩৬ বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে তৃতীয় বারের মতো বিশ্বকাপ জিতেছে মেসির আর্জেন্টিনা। ফ্রান্সের বিপক্ষে বিশ্বকাপের ফাইনালে জয়ের মাধ্যমে ১৯৮৬ সালের পর প্রথমবারের মতো বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন খেতাব পায় দক্ষিণ আমেরিকান এই দেশটি।

আর এরপরই উচ্ছ্বাসে মেতে ওঠেন আর্জেন্টাইনরা। পরে বিশ্বকাপ জয় উদযাপনে দেশে জাতীয় ছুটি ঘোষণা করেছে আর্জেন্টিনা। মঙ্গলবার (২০ ডিসেম্বর) দক্ষিণ আমেরিকার এই দেশটিতে জাতীয় ছুটি থাকবে। মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স এবং ক্রীড়া বিষয়ক ওয়েবসাইট ইসপিএন।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আর্জেন্টিনার জাতীয় দল মঙ্গলবার রাজধানী বুয়েনস আইরেসের ওবেলিস্কে তাদের বিশ্বকাপ জয় উদযাপন করবে বলে দেশটির ফেডারেশন সোমবার জানিয়েছে। রাজধানীর এই স্মৃতিস্তম্ভটি ক্রীড়া বিষয়ক নানা অর্জনের পর উদযাপনের জন্য ঐতিহ্যবাহী স্থান।

আর এ লক্ষ্যে মঙ্গলবার আর্জেন্টিনায় ছুটি ঘোষণা করেছে দেশটির সরকার। মূলত আর্জেন্টিনার সরকারের দেওয়া ঘোষণায় বলা হয়েছে, মঙ্গলবার ব্যাংক ছুটির দিন হবে যাতে সমগ্র দেশ ‘জাতীয় দলের জন্য তাদের গভীরতম আনন্দ প্রকাশ করতে পারে।’

আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (এএফএ) তার অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে বলেছে, ‘বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন স্কোয়াড মঙ্গলবার দুপুরে ভক্তদের সঙ্গে বিশ্ব শিরোপা জয়ের আনন্দ ভাগ করে নিতে রাজধানী বুয়েনস আইরেসের ওবেলিস্কের উদ্দেশ্যে রওনা হবে।’

স্থানীয় মিডিয়ার খবরে বলা হয়েছে, রোববারের ফাইনালে ফ্রান্সকে পরাজিত করা আর্জেন্টাইন জাতীয় দল মঙ্গলবার ভোরে রাষ্ট্রীয় বিমান সংস্থার ফ্লাইটে দেশে পৌঁছাবে এবং বিমানবন্দরের কাছে অবস্থিত ফেডারেশনের প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে অবস্থান করবে।

এএফএ সভাপতি ক্লদিও তাপিয়া তার টুইটার অ্যাকাউন্টে বলেছেন, ‘আর্জেন্টিনা, আমরা এখানে এসেছি।’

ফ্রান্সের বিপক্ষে রোববারের নাটকীয় বিশ্বকাপ ফাইনালে আর্জেন্টিনা প্রথমার্ধে ২-০ তে এগিয়ে থাকলেও দ্বিতীয়ার্ধে দুই মিনিটে দুটি গোল হজম করে। অতিরিক্ত সময়ের দ্বিতীয়ার্ধে মেসি গোল করলেও পরে পেনাল্টি কিক দিয়ে স্কোরে আবারও সমতা ফেরান এমবাপে।

শেষ পর্যন্ত পেনাল্টি শুটআউটে ফ্রান্সকে ৪-২ গোলে হারিয়ে বিশ্বকাপ জয় করে আর্জেন্টিনা। আর এর মাধ্যমে ১৯৭৮ এবং ১৯৮৬ সালের পর তৃতীয়বার বিশ্বকাপ ঘরে তুলল আর্জেন্টিনা। এই খেলাটিকে বিশ্বকাপের ইতিহাসের অন্যতম সেরা ফাইনাল বলে অনেকেই আখ্যায়িত করছেন।

সোমবার এক প্রতিবেদনে রয়টার্স জানিয়েছিল, প্রায় ৮৮ হাজার দর্শক-ভক্তদের সামনে কাতারে খেলা উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে তারকা খেলোয়াড় লিওনেল মেসির নেতৃত্বে আর্জেন্টিনা ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সকে পরাজিত করে তৃতীয় বিশ্বকাপ ঘরে তোলার পর রাজধানী বুয়েনস আইরেসের রাস্তায় নেমে আসেন হাজার হাজার আর্জেন্টাইন নাগরিক। এসময় তারা উল্লাসে মেতে ওঠেন।

সূত্র: ঢাকাপোস্ট
এম ইউ/২০ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button