নারায়নগঞ্জ

ফতুল্লায় কিশোর গ্যাংয়ের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ, নিহত ১

নারায়ণগঞ্জ, ১০ অক্টোবর- নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে কিশোর গ্যাংয়ের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নাইম (১৭) নামে এক কিশোর নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরও চারজন।

শুক্রবার (৯ অক্টোবর) রাতে ফতুল্লার ইসদাইর বুড়ির দোকান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় হৃদয় ও হাবিব নামে দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত নাইম ফতুল্লার ইসদাইর এলাকার মৃত খলিল মিয়ার ছেলে। আর আটক হৃদয় ও হাবিব একই এলাকার বাসিন্দা।

আরও পড়ুন: চার মাস পর পদ্মা সেতুতে স্প্যান বসছে আজ

স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন যাবৎ ফতুল্লার ইসদাইর বুড়ির দোকান এলাকায় কিশোর গ্যাংয়ের উৎপাত চলছে। প্রায়ই কিশোরদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। প্রকাশ্যে ধারালো ছুরি ও রাম দা নিয়ে মহড়া নিত্যদিনের ঘটনায় পরিনত হয়েছে। এলাকাবাসী বিষয়টি থানায় জানালে পুলিশ এসে মহড়া দিয়েও কাউকে আটক করতে পারেনি। দীর্ঘদিনের বড় ভাই ছোট ভাই ও মাদক ক্রয়-বিক্রয় নিয়ে বিরোধের জের ধরে কিশোর নাইমকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে হৃদয় নামে আরেক কিশোর।

ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) নুর মোহাম্মদ জানান, ইসদাইর বুড়ির দোকান এলাকার একটি চায়ের দোকানে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে নাঈম ও লিমন তর্কে লিপ্ত হয়। কিছুক্ষণ পর দুই পক্ষের লোকজন এসে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। তারা কিশোর গ্যাংয়ের সদস্য। প্রতিপক্ষ গ্রুপের ছুরিকাঘাতে নাঈম গুরুতর আহত হলে তাকে হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও জানান, নাঈমের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। সংঘর্ষে আল-আমিন, লিমনসহ চারজন ছুরিকাঘাতে আহত হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ১০ অক্টোবর

Back to top button