উত্তর আমেরিকা

অবৈধ প্রবেশ ঠেকাতে যুক্তরাষ্ট্রের সীমান্তে জরুরি অবস্থা

ওয়াশিংটন, ১৯ ডিসেম্বর – অবৈধ অভিবাসীদের প্রবেশ ঠেকাতে যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস সীমান্তে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছেন এল পাসো সিটি মেয়র। কারণ প্রতিদিন হাজার হাজার অবৈধ অভিবাসী যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের অপেক্ষায় দিন গুনছে। মেক্সিকো সীমান্তে লাতিন আমেরিকার দেশগুলো থেকে তারা এ সীমান্ত শহরটিতে প্রবেশের চেষ্টা করছেন প্রতিনিয়ত।

যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা বলছেন, প্রতিদিন ২ হাজার ৪০০-এর বেশি অভিবাসী এল পাসোতে প্রবেশ করেন।

ফেডারেল স্বাস্থ্য আদেশ টাইটেল ফোর্টি টু-র মেয়াদ শেষ হচ্ছে বুধবার। তার আগে এই জরুরি ঘোষণা এলো। কোভিড-১৯ মহামারীর সময় প্রণীত টাইটেল ফোর্টি টু সীমান্তের ওপারে অভিবাসীদের দ্রুত ফিরে যাবার অনুমতি দেয়।

আগামী সপ্তাহে যদি টাইটেল ফোর্টি টু আর কার্যকর না হয়, তবে কর্মকর্তারা বলেছেন যে এল পাসো দিয়ে প্রতিদিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশকারী অভিবাসীদের দৈনিক সংখ্যা ২ হাজার ৪০০ থেকে ৬ হাজারে বাড়তে পারে। এল পাসোর প্রতিনিধিত্বকারী ডেমোক্রেটিক সিনেটর সেসার জে ব্লাঙ্কো এক বিবৃতিতে বলেছেন, একটি অস্বাভাবিকরকম মানবিক সঙ্কটের মুখোমুখি হচ্ছে সীমান্ত।’

ফেডারেল এজেন্সির হিসাব অনুযায়ী এল পাসো এলাকায় সাম্প্রতিককালে বিদেশিদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের প্রবণতা বৃদ্ধি পেয়েছে এবং সেই এলাকার সবগুলো ফটক দিয়ে অক্টোবর মাসে ৫৩ হাজার বিদেশি যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করেছে।

সীমান্তে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের সময়ে নিষেধাজ্ঞার অনেকগুলোই বহাল রয়েছে। কিন্তু কূটনৈতিক কারণে যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্যসেবা কর্তৃপক্ষ নিকারাগুয়ার কাউকে বহিস্কারের জন্য সুপারিশ করতে পারে না। কারণ মেক্সিকো তাদেরকে গ্রহণ করবে না এবং বাইডেন প্রশাসন তাদের নিকারাগুয়ায় ফেরত পাঠাতেও পারে না।

সূত্র: সমকাল
এম ইউ/১৯ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button