ক্রিকেট

অলৌকিক কিছু হলো না, ১৮৮ রানে হারলো টাইগাররা

চট্টগ্রাম, ১৮ ডিসেম্বর – সফরকারী ভারতের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টে ১৮৮ রানে হারলো বাংলাদেশ। যার মধ্য দিয়ে দুই ম্যাচ সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেলো ভারত। শেষদিনে ম্যাচ জিততে টাইগারদের প্রয়োজন ছিলো ২৪১ রান। অন্যদিকে ভারতের দরকার ছিলো ৪ উইকেট।

রোববার ব্যাট হাতে দিন শুরু করেছিলেন অপরাজিত থেকে চতুর্থ দিন শেষ করা সাকিব, মিরাজ। ব্যক্তিগত ১৩ রানে মোহাম্মদ সিরাজের বলে কাভার ড্রাইভ খেলতে গিয়ে মিরাজ আউট হলেও পরের ওভারেই সাকিব আল হাসান তুলে নেন ক্যারিয়ারের ৩০ তম ফিফটি। সাকিবের ব্যাটিংয়ে জয়ের আশা জাগলেও ৮৪ রানে আউট হয়ে বাংলাদেশকে বিপদে ফেলে বিদায় নেন তিনি।

চতুর্থ দিনের শুরুটা বেশ ভালো করেছিলো বাংলাদেশ। কিন্তু দ্বিতীয় সেশন থেকে শেষ সেশন পর্যন্ত ৬ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ থেকে প্রায় ছিটকে গেছে টাইগাররা। এদিন সাকিব ৪০ এবং মিরাজ ৯ রানে অপরাজিত থেকে দিন শেষ করেন।

এর আগে চতুর্থ বাংলাদেশি ক্রিকেটার হিসেবে অভিষেক টেস্টেই সেঞ্চুরির রেকর্ড স্পর্শ করেন জাকির হাসান। শুক্রবার ১৭ রানে অপরাজিত থেকে দিন পার করার পর শনিবার ৮৩ রান যোগ করে প্রথম সেঞ্চুরির স্বাদ পান বাঁহাতি এই ওপেনার। যার মাধ্যমে ওপেনার হিসেবে বাংলাদেশের হয়ে অভিষেক টেস্টে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডটাও নিজের করে নিয়েছেন তিনি। ২১৯ বলে ১৩ চার ও ১ ছয়ে সেঞ্চুরি উদযাপন করেন জাকির।

সেঞ্চুরি করে জাকিরের ফেরার পরই ব্যাটিংয়ে ধস নামে টাইগার শিবিরে। মুশফিকুর রহিমের পর ফিরে যান নুরুল হাসান সোহানও। দলীয় ২৩৫ রানের মাথায় অক্ষর প্যাটেলের বলে বোল্ড হয়ে ২৩ রান করে ফিরে যান মুশফিক। একই ওভারে ফিরে যান নুরুল হাসান সোহানও। উইকেটকিপার এই ব্যাটার করেন মোটে ৩ রান।

এর আগে দুই উইকেট হারানোর পর লিটন দাস এবং জাকির হাসানের জুটিতে বড় পার্টনারশিপের আশা দেখছিলো বাংলাদেশ। তবে চা বিরতির মিনিট দশেক আগেই ঘটে বিপত্তি। কুলদীপ যাদবের বলে ব্যক্তিগত ১৯ রানে লং অনের কাছে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান তারকা এই ব্যাটার। ভেঙে যায় ৪২ রানের জুটি।

চতুর্থ দিনের প্রথম সেশনে জাকির-শান্তর জুটিতে বেশ ভালোই এগিয়েছিলো বাংলাদেশ। তবে দলীয় ১২৪ রানের মাথায় উমেশ যাদবের বলে স্লিপে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান শান্ত। করেন ৬৭ রান।

এর আগে দ্বিতীয় ইনিংসে ২৫৮ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করেছিলো ভারত। দ্বিতীয় ইনিংসের সঙ্গে প্রথম ইনিংসের ২৫৪ রান যোগ হয়ে প্রথম টেস্টে বাংলাদেশের জয়ের জন্য লক্ষ্যমাত্রা গিয়ে দাঁড়ায় ৫১৩ রানে। সাগরিকা টেস্টে ভারত প্রথম ইনিংসে সংগ্রহ করেছিলো ৪০৪ রান। বিপরীতে বাংলাদেশ সংগ্রহ করে মোটে ১৫০ রান।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
আইএ/ ১৮ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button