ফুটবল

মরক্কোকে হারিয়ে বিশ্বকাপের তৃতীয় স্থান পেল ক্রোয়েশিয়া

দোহা, ১৭ ডিসেম্বর -তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচটি যতটা পানসে হবে ভাবা হয়েছিলো, ঠিক ততটা হয়নি। বরং, টান টান উত্তেজনায় পূর্ণ ছিল ম্যাচের পুরোটা সময়। ম্যাচ শুরু হতে না হতেই মাত্র দুই মিনিটের ব্যবধানে পাল্টাপাল্টি গোল করে বসেছিল ক্রোয়েশিয়া এবং মরক্কো। এরপর প্রথমার্ধের শেষ দিকে আরও এক গোল করে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে বিরতিতে গিয়েছিল ক্রোয়াটরা। বিরতির পরও দুই দল আক্রমণ পাল্টা আক্রমণে ম্যাচকে জমিয়ে তুলেছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত গোলের প্রচেষ্টা সফল হয়নি। যার সুবাদে আফ্রিকার দেশ মরক্কোকে ২-১ গোলের ব্যবধানে পরাজিত করে চলমান কাতার বিশ্বকাপের বিশ্বকাপের তৃতীয় স্থান পেল গত আসরের রানার্সআপ লুকা মদ্রিচের দল।

 

শনিবার (১৭ ডিসেম্বর) আল রাইয়ানের খলিফা আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে মাঠে নামে দুই দল। যেখানে ম্যাচের শুরুতেই এগিয়ে যায় ক্রোয়েশিয়া। সপ্তম মিনিটে মরক্কোর ডি-বক্সের সামনে ফ্রি কিক পায় লুকা মদ্রিচরা। সেই ফ্রি কিকের শট থেকে বল পেয়ে যান ইভান পেরিসিচ। তিনি হেড নিলে ডি-বক্সের ভিতরে আবার হেড নেন জোসকো। তাতে শুরুতেই গোল করে ক্রোয়েশিয়াকে এগিয়ে নেন জোসকা।

পিছিয়ে পড়া মরক্কো দুই মিনিট পরেই সমতায় ফেরে। ফ্রি কিক থেকে উড়ে আসা বল ক্রোয়েশিয়ার রক্ষণভাগের খেলোয়াড় ক্লিয়ার করার চেষ্টা করেন। কিন্তু বল তার মাথা ছুঁয়ে চলে আসে গোলপোস্টের সামনে। সেখানে আচরাফ দারি নিচু হয়ে হেড নিয়ে জালে পাঠান বল। তাতেই ১-১ গোলের ব্যবধানে সমতা ফেরে মরক্কো।

এরপরও মরোক্কোর বিপক্ষে বেশ প্রভাব বিস্তার করে খেলতে থাকে ক্রোয়াটরা। কিন্তু গোলের দেখা পাচ্ছিল না তারা। অন্যদিকে মরক্কো আক্রমণে নিজেদের সেভাবে মেলে ধরতে পারছিল না। ফলে সমতায় প্রথমার্ধের বিরতির দিকে যাচ্ছিল ম্যাচ। তবে ৪২ মিনিটে মার্কো লিভাজার অ্যাসিস্টে ওরসিচের অসাধারণ এক গোলে আবার এগিয়ে যায় ক্রোয়েশিয়া। তার গোলে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে থেকেই প্রথমার্ধের খেলা শেষ করেছে গত আসরের রানার্সআপ দলটি।

দ্বিতীয়ার্ধেও গোলের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে ক্রোয়েশিয়া ও মরক্কো। কিন্তু সতর্কতার সঙ্গে খেলতে থাকা ক্রোয়াটদের বিপক্ষে গোল শোধ দিতে মরিয়া হয়ে খেলেও কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পায়নি অ্যাটলাস লায়ন্সরা। দ্বিতীয়ার্ধে ক্রোয়েশিয়ার থেকে বল দখলে বেশ এগিয়ে থাকে মরক্কো। কিন্তু আক্রমণগুলো প্রায় সবই বারবার প্রতিহত হচ্ছিল ক্রোয়েশিয়ার ডিফেন্সের কাছে।

ম্যাচের শেষের দিকে মরক্কোর এন-নাসিরি লাফিয়ে উঠে হেড করলে সেটি জাল ঘেষে বাইরে দিয়ে চলে যায়। এর কিছুক্ষণ পরেই ম্যাচ সমাপ্ত ঘোষণা করেন রেফারি। ফলে বিশ্বকাপে চতুর্থ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় মরক্কোকে, আর দ্বিতীয়বারের মতো তৃতীয় স্থান পেল ইউরোপিয়ান দেশটি।

ম্যাচে ৫০ শতাংশ বলের দখল ছিল ক্রোয়েশিয়ার পায়ে। আক্রমণেও এগিয়ে তারা। এ পর্যন্ত নয়টি কার্যকর আক্রমণ শানিয়ে গোলপোস্টের দিকে শট নিয়েছিল। তার মধ্যে চারটি ছিল অন টার্গেটে। যেখান থেকে দুটি গোল হয়েছে। অন্যদিকে মরোক্কোর সাত শটের মধ্যে অন টার্গেটে দুটি শট নিয়েছিল। সেখান থেকেই একটি গোল পরিশোধ করেছে তারা।

সূত্র: আরটিভি নিউজ
আইএ/ ১৭ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button