আফ্রিকা

কঙ্গোয় ভয়াবহ বন্যা, ১৬৯ জনের প্রাণহানি

ব্রাজাভিল, ১৭ ডিসেম্বর – কঙ্গোর রাজধানী কিনশাসায় বিগত কয়েক বছরের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যায় এখন পর্যন্ত ১৬৯ জনের প্রাণহানি ঘটেছে।

শুক্রবার (১৬ ডিসেম্বর) জাতিসংঘের মানবিক বিষয়ক সমন্বয় কার্যালয় (ওসিএইচএ) ও কর্মকর্তারা এ তথ্য জানিয়েছেন।

শনিবার আল জাজিরার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মঙ্গলবার রাতভর প্রচণ্ড বৃষ্টিপাতের পর কিনশাসার কেন্দ্রস্থলের প্রধান সড়কগুলো বেশ কয়েক ঘণ্টা ধরে পানিতে নিমজ্জিত থাকে এবং মতাদি বন্দর অভিমুখী প্রধান সরবরাহ রুট বন্ধ হয়ে যায়। নগরীটিতে প্রায় দেড় কোটি মানুষ বসবাস করে।

কঙ্গো কর্তৃপক্ষের উদ্ধৃতি দিয়ে জাতিসংঘের মানবিক সমন্বয় বিষয়ক কার্যালয় (ওসিএইচএ) জানায়, ‘১৬ ডিসেম্বর এ প্রাকৃতিক দুর্যোগে দেশটিতে কমপক্ষে ১৬৯ জনের মৃত্যু ও প্রায় ৩০ জন আহত হয়েছেন। নগরীর বিভিন্ন হাসপাতালে আহতদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। বন্যায় কমপক্ষে ২৮০টি ঘরবাড়ি ধসে পড়েছে। ’

ওসিএইচএ জানায়, প্রবল বর্ষণের ফলে সৃষ্ট বন্যায় রাজধানীর পশ্চিমের মণ্ট-নগাফুলা ও নগালিমা জেলার সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে। এতে প্রায় ৩৮ হাজার মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

ওসিএইচএ এবং সরকারের সামাজিক বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের একটি যৌথ দল বৃহস্পতিবার ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেছে।

ওসিএইচএ এক বিবৃতিতে বলেছে, “সরকার নিশ্চিত করেছে যে, যারা নিহত হয়েছেন তাদের একটি মর্যাদাপূর্ণ ও নিরাপদ দাফনের আয়োজন করা হবে। ”

কঙ্গো নদীর কিণারে অবস্থিত কিনশাসায় সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বিপুল সংখ্যক মানুষের সমাগম লক্ষ্য করা যায়। প্রায় ১৫ মিলিয়ন মানুষ এখন বাস করছে রাজধানীতে।

সূত্র: বাংলানিউজ
আইএ/ ১৭ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button