বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

পানিসমৃদ্ধ দুই গ্রহের সন্ধান দিলেন বিজ্ঞানীরা

পৃথিবীর বাইরে পানির অস্তিত্ব থাকা নিয়ে বিজ্ঞানীদের কৌতূহল এবং অনুসন্ধানের শেষ নেই। কারণ পানির সঙ্গে প্রায় অনিবার্যভাবে জড়িয়ে থাকে প্রাণের অস্তিত্বের বিষয়টি। এ পর্যন্ত পৃথিবীর বাইরে কোথাও কোথাও প্রাচীনকালে তরল পানির ধারা বা বরফের সম্ভাব্য অস্তিত্বের আভাস দিয়েছেন বিজ্ঞানীরা।

এবার একদল গবেষক বেশ নিশ্চয়তা দিয়ে দাবি করেছেন, ‘পানি দিয়ে ঢাকা’ দুটি গ্রহ আবিষ্কার করেছেন তাঁরা।

বিজ্ঞানবিষয়ক সাময়িকী ‘নেচার অ্যাস্ট্রনমিতে’ বৃহস্পতিবার পানিসমৃদ্ধ গ্রহের সন্ধান পাওয়া নিয়ে গবেষণা প্রকাশিত হয়েছে। এসংক্রান্ত প্রতিবেদনে বিজ্ঞানীরা বলেছেন, ‘আমাদের সৌরজগৎ থেকে প্রায় ২১৪ আলোকবর্ষ দূরের এক সৌরজগতে কেপলার-১৩৮সি এবং কেপলার-১৩৮ডি নামের এই দুটি গ্রহ অবস্থান করছে। ’ উল্লেখ্য, এক আলোকবর্ষ দূরত্ব হচ্ছে আলো এক বছরে যতটা পথ ভ্রমণ করে সেই দৈর্ঘ্য।

বিজ্ঞানীরা এর আগে এমন ধারণা করলেও তেমন কোনো যুক্তি উপস্থাপন করতে পারেননি। তবে এবার তাঁরা বেশ জোরালো প্রমাণ নিয়ে হাজির হয়েছেন।

মার্কিন মহাকাশ সংস্থার (নাসা) হাবল এবং স্পিটজার টেলিস্কোপ এই গ্রহ দুটির অবস্থান সম্পর্কে তথ্য দিয়েছে। কানাডার মন্ট্রিয়ল বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষকের নেতৃত্বে এই গবেষণা চালানো হয়েছে। গবেষণাকাজের নেতৃত্ব দিয়েছেন অধ্যাপক ক্যারোলিন পিয়াউলেট।

মন্ট্রিয়ল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এবং গবেষণাকর্মের সহলেখক অধ্যাপক বিয়র্ন বেনেকি বলেন, ‘আমরা গবেষণায় দেখিয়েছি, গ্রহ দুটি প্রকৃতি ও বৈশিষ্ট্যে ভিন্ন। এদের আয়তনের একটি বড় অংশ পানি দিয়ে গঠিত। এটি এখন পর্যন্ত পানির সন্ধান পাওয়ার বড় প্রমাণ। ’

অধ্যাপক বেনেকি আরো বলেন, ‘আগে আমরা মনে করতাম, পৃথিবীর চেয়ে আকারে কিছুটা বড় গ্রহগুলো নিছক পাথর কিংবা ধাতব বল। ’

গবেষণায় অবশ্য বলা হয়েছে, বিপুল পানির জগিট সাগরের মতো কিছু না-ও হতে পারে। উত্তপ্ত বায়ুমণ্ডলে ভেসে বেড়ানো বড় জলীয়বাষ্পের স্তরও হতে পারে তা।

আইএ/ ১৭ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button