জাতীয়

চাল-গম আমদানিতেও ন্যূনতম মার্জিন রাখতে পারবে ব্যাংক

ঢাকা, ১৪ ডিসেম্বর – খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে চাল ও গম আমদানিতে এলসির নগদ মার্জিন হার ন্যূনতম রাখার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

আমদানি সচল রেখে স্থানীয় বাজারে নিত্যপণ্য সরবরাহ স্থিতিশীল রাখা এবং ভোগ্যপণ্যের দাম সহনীয় রাখতেই এ নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

বুধবার (১৪ ডিসেম্বর) কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা দিয়ে সব ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী বরাবর পাঠিয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনায় বলা হয়, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ পরিস্থিতির কারণে আন্তর্জাতিক বাজারে সরবরাহ ব্যবস্থা (সাপ্লাই চেইন) বিঘ্ন হওয়ায় খাদ্যশস্যের মূল্যবৃদ্ধির বিষয়টি পরিলক্ষিত হচ্ছে। এ কারণে আন্তর্জাতিক পণ্য পরিবহন ব্যয় বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে খাদ্যশস্যের মূল্যের ওপর এর নেতিবাচক প্রভাব পরিলক্ষিত হচ্ছে। এ অবস্থায় ভবিষ্যৎ খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতে দেশের প্রধান খাদ্যশস্য চাল ও গমের মূল্য সহনীয় পর্যায়ে রাখাসহ নিরবচ্ছিন্ন সরবরাহ অব্যাহত রাখা আবশ্যক।

কেন্দ্রীয় ব্যাংক নির্দেশনায় জানিয়েছে, ইউক্রেন পরিস্থিতিতে অভ্যন্তরীণ বাজারে চাল ও গমের মূল্য সহনীয় পর্যায়ে রাখা এবং সরবরাহ ব্যবস্থা নিরবচ্ছিন্ন রাখার লক্ষ্যে চাল ও গম আমদানির ঋণপত্র স্থাপনের ক্ষেত্রে নগদ মার্জিনের হার ব্যাংকার-গ্রাহক সম্পর্কের ভিত্তিতে ন্যূনতম পর্যায়ে রাখতে হবে। ব্যাংক কোম্পানি আইন, ১৯৯১ এর ৪৫ ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে জারি করা হয়েছে যা অবিলম্বে কার্যকর হবে। একই সঙ্গে পরবর্তী নির্দেশনা প্রদান না করা পর্যন্ত তা বলবৎ থাকবে।

এর আগে মঙ্গলবার আরেক নির্দেশনায়, আসন্ন পবিত্র রমজান মাসে নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোজ্য তেল, ছোলা, ডাল, মটর, পেঁয়াজ, মসলা, চিনি এবং খেজুরসহ আটটি পণ্য বাকিতে আমদানির সু‌যোগ দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
এম ইউ/১৪ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button