জাতীয়

শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে সর্বজনের শ্রদ্ধা

ঢাকা, ১৪ ডিসেম্বর – মিরপুরে শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে জাতির সূর্য সন্তানদের শ্রদ্ধা জানিয়েছে সর্বস্তরের মানুষ। বাঙালি জাতির বেদনাবিধুর দিন ১৪ ডিসেম্বর। ১৯৭১ সালে পাকিস্তানের সঙ্গে মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের ঠিক আগ মুহূর্তে এ দিনেই নির্মম হত্যাযজ্ঞের শিকার হন দেশের শ্রেষ্ঠ সন্তান বুদ্ধিজীবীরা। সেই শোকের দিন স্মরণে প্রতি বছরের ১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালন করে আসছে বাঙালি জাতি। এই দিনে স্মৃতিসৌধের রক্তে রাঙা লাল বেদিতে ফুল দিয়ে সূর্যসন্তানদের সম্মান জানানো হয়।

বুধবার (১৪ ডিসেম্বর) ভোর থেকেই ফুল হাতে নানা শ্রেণি পেশার মানুষ শ্রদ্ধা জানাতে জড়ো হতে থাকেন মিরপুর স্মৃতিসৌধে। নতুন প্রজন্মকে শহীদদের আত্মত্যাগের কথা জানাতে সন্তানদের নিয়ে এসেছিলেন অনেক অভিভাবকও।

এ সময় স্বাধীনতার ৪৫ বছর পর জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের হত্যাকারীদের বিচারের রায় কার্যকর হওয়ায় সবাই স্বস্তি প্রকাশ করেন। একইসঙ্গে পলাতক আসামিদের দ্রুত ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকরের দাবি জানান তারা।

শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা

এর আগে সকালে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এরপর সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য বুদ্ধিজীবি স্মৃতিসৌধ উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়।

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি, ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ পেশাজীবী পরিষদ, উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগ, বাংলাদেশ বাউল সমিতি, কমার্স কলেজসহ বিভিন্ন সংগঠনের ব্যানারে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

সূত্র: জাগোনিউজ
আইএ/ ১৪ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button