জাতীয়

আওয়ামী লীগের সম্মেলনের দিনে বিএনপির গণমিছিল ‘গন্ডগোলের ষড়যন্ত্র’

ঢাকা, ১৩ ডিসেম্বর – আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনের দিনে ঢাকাসহ সারাদেশে বিএনপির গণমিছিল কর্মসূচি ঘোষণাকে ‘গন্ডগোলের ষড়যন্ত্র’ হিসেবে দেখছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

গত ১০ ডিসেম্বর ঢাকা বিভাগীয় গণসমাবেশে ব্যর্থ হয়ে ২৪ ডিসেম্বর বিএনপি গণমিছিলের নামে গন্ডগোল করার ষড়যন্ত্র করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

মঙ্গলবার (১৩ ডিসেম্বর) বিকেলে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে পুরাতন বাণিজ্য মেলার মাঠে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ আয়োজিত সমাবেশে দেওয়া বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, ২৪ ডিসেম্বর আমাদের জাতীয় সম্মেলন। সেদিন কেন প্রোগ্রাম দিয়েছে তারা (বিএনপি)? সেদিন কেন তাদের কর্মসূচি আমি জানতে চাই।

বিএনপির উদ্দেশে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, (গণমিছিল) প্রত্যাহার করুন। সংঘাতের উসকানি দেবেন না। ২৪ তারিখে সারাদেশ থেকে আমাদের নেতাকর্মীরা ঢাকায় আসবেন। আমরা সংঘাত চাই না। আপনাদের গণমিছিল বাইরে করেন। ঢাকা সিটিতে সেদিন গণমিছিল না করার জন্য অনুরোধ করছি।

তিনি বলেন, দুই মাস আগে আমাদের নেত্রী (আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) ২৪ ডিসেম্বর জাতীয় সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করেছেন। এখন বিএনপির এ কর্মসূচির অর্থ সংঘাতের উসকানি। ১০ তারিখ ব্যর্থ হয়ে এখন ২৪ তারিখ গন্ডগোলের ষড়যন্ত্র করছে বিএনপি।

দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, আপনারা সতর্ক থাকবেন। তারা (বিএনপি) জঙ্গিদের মাঠে নামিয়েছে। ১০ তারিখ হলো খেলা? কী হলো? বিএনপির ১০ ডিসেম্বর ভুয়া, সরকারের পতন ভুয়া, বিজয় মিছিল ভুয়া, আন্দোলন ভুয়া।

গত ১০ ডিসেম্বর রাজধানীর গোলাপবাগ মাঠে বিভাগীয় সমাবেশ থেকে দুই দফা কর্মসূচি ঘোষণা করে বিএনপি। এর মধ্যে ২৪ ডিসেম্বর সমমনা দলগুলোকে নিয়ে সারাদেশে জেলা ও মহানগর পর্যায়ে গণমিছিল এবং ১৩ ডিসেম্বর সারাদেশে সব বিভাগীয় ও জেলা সদরে বিক্ষোভ মিছিল করার ঘোষণা দেয় বিএনপি।

ওবায়দুল কাদের দাবি করেছেন, সরকারকে চাপ দিতে আমেরিকা যেন আবারও নিষেধাজ্ঞা দেয়, সেজন্য বিএনপি ষড়যন্ত্র করেও ব্যর্থ হয়েছে।

বিএনপি নেতা আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী একটি ‘মিশন’ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে গিয়েছিলেন অভিযোগ করে তিনি বলেন, আমীর খসরু সাহেব ওয়াশিংটনে গেছেন। সরকারকে নিষেধাজ্ঞা দিতে তদবির করতে গেছেন। আমীর খসরু সাহেব কী পেলেন? তার মিশন ব্যর্থ। হতাশ হয়ে পড়েছেন।

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমানের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যদের মধ্যে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম মান্নান কচি, যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ, সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল, বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মেহের আফরোজ চুমকি, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলামসহ মহানগরের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র: জাগোনিউজ
আইএ/ ১৩ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button