জাতীয়

রাতেই ভরে গেছে গোলাপবাগ মাঠ, সড়কে যানজট

ঢাকা, ৯ ডিসেম্বর – নানা নাটকীয়তা, টানোপোড়েন ও নানা জল্পনা-কল্পনা শেষে রাজধানীর গোলাপবাগ মাঠে গণসমাবেশ করার অনুমতি পেয়েছে বিএনপি। পুলিশের অনুমতি পাওয়ার পর আজ শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপিও জানিয়েছে, শনিবার সকাল ১১টায় সায়েদাবাদের কাছে গোলাপবাগ মাঠে সমাবেশ হবে।

এদিকে এমন খবরের পর শুক্রবার বিকেল থেকেই মিছিল নিয়ে জড়ো হতে শুরু করেন দলটির বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের হাজার হাজার নেতাকর্মী। সময় যত বাড়ছে নেতাকর্মীদের সমাগমও বেড়ে চলেছে।

নেতাকর্মীদের ভিড়ে সড়কে যানজট সৃষ্টি হয়েছে। মাঠের ভেতর ও সড়কে নেতাকর্মীরা খণ্ড খণ্ড হয়ে মিছিল করছেন।
মাঠে ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমান উল্যাহ আমান, সদস্যসচিব আমিনুল হক, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সদস্যসচিব রফিকুল আলম মজনুসহ দলীয় নেতৃবৃন্দ মাঠে রয়েছেন।

এদিকে গোলাপবাগ মাঠের পশ্চিম পাশে সমাবেশের মঞ্চ তৈরির কাজ শুরু করেছেন শ্রমিকরা। মাঠে ৪টি ফটক রয়েছে। এ ফটক দিয়েই প্রবেশ ও বের হওয়া যাবে।

এর আগে শুক্রবার দুপুরে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ডা. জাহিদ হোসেন ও কেন্দ্রীয় নেতা ব্যারিস্টার কায়সার কামাল ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার ও ঢাকা গোয়েন্দা পুলিশের প্রধান হারুন অর রশীদের সঙ্গে তার কার্যালয়ে দেখা করেন। তারা ওই মাঠে মঞ্চ নির্মাণ এবং মাইক বসানোর জন্য আনুষ্ঠানিক আবেদন করার পর সম্মতি দেয় পুলিশ। হারুন সাংবাদিকদের বলেন, ২৬ শর্তে বিএনপিকে অনুমিত দেওয়া হয়েছে।

সমাবেশস্থল নিয়ে পুলিশ ও বিএনপি এমন সময় সমঝোতায় এল যখন এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে দলের এক কর্মীর প্রাণ হারিয়েছেন। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এবং স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসসহ সাড়ে ৪ শ’র বেশি নেতাকর্মী গ্রেপ্তার হয়েছেন।

নির্দলীয় সরকারের দাবি আদায়, জ্বালানি তেল ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি এবং দলীয় কর্মসূচিতে নেতাকর্মী নিহত হওয়ার প্রতিবাদে সব বিভাগীয় শহরে সমাবেশ করছে বিএনপি। আজ ১০ ডিসেম্বর ঢাকার সমাবেশের মধ্য দিয়ে এ কর্মসূচি শেষ হবে।

সূত্র: কালের কন্ঠ
আইএ/ ৯ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button