জাতীয়

সারারাত সমাবেশস্থলে থাকবেন বিএনপির নেতাকর্মীরা

ঢাকা, ০৯ ডিসেম্বর – বিকেলে ঘোষণার পর থেকেই রাজধানীর গোলাপবাগ মাঠে আসতে শুরু করেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। সন্ধ্যা হলে মাঠটি পূর্ণ হয়ে যায়।

রাত যত গড়াচ্ছে দলটির বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা মাঠে অবস্থান নিচ্ছেন। শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) পুরো রাত তারা সেখানে অবস্থান করবেন।
আগামীকাল শনিবার (১০ ডিসেম্বর) বিএনপির সর্বশেষ বিভাগীয় সমাবেশ। সমাবেশটি অনুষ্ঠিত হবে গোলাপবাগ মাঠে। নানা নাটকীয়তার পর স্থানটি নির্ধারিত হয়।

রাতে গোলাপবাগ মাঠে যারা অবস্থান করবেন, তাদের বেশিরভাগই ঢাকার বাইরে থেকে আসা। আর যারা ঢাকায় থাকেন তাদের বেশিরভাগ মধ্যরাত পর্যন্ত অবস্থান করে বাসায় ফিরবেন। পরবর্তীতে তারা সকালে সমাবেশ স্থলে আসবেন বলে জানা গেছে।

রাতে নেতাকর্মীদের নিয়ে সমাবেশস্থলে এসেছেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবদলের সদস্য সচিব খন্দকার এনামুল হক এনাম। তিনি বলেন, ইতোমধ্যে লাখো নেতাকর্মী মাঠে অবস্থান নিয়েছেন। মাঠ কানায় কানায় পূর্ণ। শনিবার দেশের ‘ইতিহাসের স্মরণকালের সর্ববৃহৎ’ সমাবেশ হবে বলে তিনি মনে করেন।

এনাম আরও বলেন, দলের নেতা কর্মীদের বিশ্বাস ছিল আমরা এই সমাবেশ করব। সেখানে সরকার পিছু হটতে বাধ্য হয়েছে। আমাদের সিনিয়র নেতারা চেয়েছিলেন পল্টন পার্টি অফিসের আশপাশে কোথাও করতে। সে হিসেবে গোলাপবাগ মাঠ আমাদের পার্টি অফিসের কাছাকাছি। রাষ্ট্রযন্ত্র ব্যবহার করে তারা (আওয়ামী লীগ) আমাদের পল্টনের কার্যালয় দখল করে রেখেছে। এটা বাহাদুরির কিছু না।

সমাবেশ অংশ নিতে তিনদিন আগেই ঢাকায় এসেছেন ধামরাই ছাত্রদলের সাবেক ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মেহেদি হাসান ভূইয়া। কাগজের ফেস্টুনে লিখে নিয়ে এসেছেন, ‘বাংলাদেশ যাবে কোন পথে, ফয়সালা হবে রাজপথে’ ও ‘টেক ব্যাক বাংলাদেশ’।

সমাবেশের মাধ্যমে জনগণকে বিএনপি কী বার্তা দিতে চায় প্রশ্ন করলে মেহেদি বলেন, যারা রাষ্ট্র ক্ষমতা ধরে রাখতে মানুষের ভোটের অধিকার হরণ করে, তারা এভাবেই জনগণ দ্বারা দীক্ষিত হয়। এই প্রতিবাদেই জনগণ মাঠে নেমেছে। শনিবার জনগণ এই ফ্যাসিবাদী সরকারকে না করে দেবে।

তিনি আশা করেন মাঠ ছাড়া আশপাশের দুই-তিন কিলোমিটার বিএনপির নেতাকর্মীরা অবস্থান নেবেন।

বিএনপির সমাবেশের আগে নেতাকর্মীদের অবস্থানের কারণে গোলাপবাগের আশপাশ, মানিকনগরসহ অন্যান্য এলাকায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। গোলাপবাগ মাঠের দক্ষিণ দিকের রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। বিএনপি নেতাকর্মী মাঠের বিভিন্নস্থানে ব্যানার ফেস্টুন বসাচ্ছেন। ছোট ছোট মিছিল নিয়ে গোলাপবাগ মাঠ ও এর আশপাশের এলাকা প্রদক্ষিণ করছে বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীরা।

সূত্র: বাংলানিউজ
আইএ/ ০৯ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button