ইউরোপ

রুশ হামলায় বিপর্যস্ত ইউক্রেন, নিহত ৪

কিয়েভ, ০৭ ডিসেম্বর – রাশিয়ার পৃথক দুটি বিমানঘাঁটিতে ড্রোন হামলায় হতাহতের জেরে ইউক্রেনজুড়ে রুশ হামলায় এবার দক্ষিণ-পূর্ব ইউক্রেনের বাড়িঘর ধ্বংস হয়েছে এবং সেখানকার বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। মঙ্গলবার এ ঘটনায় কমপক্ষে ৪ জন নিহত হয়েছেন বলে দাবি করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি।

বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, ইমারজেন্সি ব্লাকআউটের শঙ্কার মধ্যে রয়েছে ইউক্রেন। দেশটির কিছু অংশে তাপমাত্রা শূন্য ডিগ্রি সেলসিয়াসের (৩২ ফারেনহাইট) নিচে রয়েছে। রাশিয়ার হামলায় ইউক্রেনের বেশ কিছু অংশ অন্ধকারাচ্ছন্ন হয়ে পড়েছে।

জেলেনস্কি আরও বলেন, অনেক অঞ্চলে, ইমারজেন্সি ব্ল্যাকআউট হবে। তবে স্থিতিশীলতা পুনরুদ্ধারের জন্য আমরা সব কিছু করব। ইউক্রেনে প্রায় ৭০টি ক্ষেপণাস্ত্র ভূপাতিত হয়েছে। বিদ্যুৎ সংযোগ পুনরায় চালু করতে কাজ শুরু করা হয়েছে।

দেশটির দাবি, রুশ হামলা ইউক্রেনীয়দের বাড়িঘর ধ্বংস করে দিয়েছে এবং বহু এলাকাকে বিদ্যুৎবিহীন করে দিয়েছে। যদিও ক্ষতি মেরামতের কাজ করছে ইউক্রেন।

এদিকে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, রিয়াজান এবং সারাতোভের দুটি বিমানঘাঁটিতে ইউক্রেনের ড্রোন হামলায় ৩ জন নিহত হয়েছেন এবং আহত হয়েছেন ৪ জন। এটিকে ‘সন্ত্রাসী’ কার্যক্রম বলে আখ্যা দেওয়া হয়েছে। তবে রাশিয়ায় হামলার বিষয়ে দায় শিকার করেনি ইউক্রেন।

উল্লেখ্য, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ শুরু হয়। রাশিয়ার দাবি যদি সঠিক হয়, তা হলে এটিই রাশিয়ায় চালানো ইউক্রেনের সবচেয়ে বড় হামলা।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
আইএ/ ০৭ ডিসেম্বর ২০২২াকিয়েভ, ০৭ ডিসেম্বর – রাশিয়ার পৃথক দুটি বিমানঘাঁটিতে ড্রোন হামলায় হতাহতের জেরে ইউক্রেনজুড়ে রুশ হামলায় এবার দক্ষিণ-পূর্ব ইউক্রেনের বাড়িঘর ধ্বংস হয়েছে এবং সেখানকার বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। মঙ্গলবার এ ঘটনায় কমপক্ষে ৪ জন নিহত হয়েছেন বলে দাবি করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি।

বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, ইমারজেন্সি ব্লাকআউটের শঙ্কার মধ্যে রয়েছে ইউক্রেন। দেশটির কিছু অংশে তাপমাত্রা শূন্য ডিগ্রি সেলসিয়াসের (৩২ ফারেনহাইট) নিচে রয়েছে। রাশিয়ার হামলায় ইউক্রেনের বেশ কিছু অংশ অন্ধকারাচ্ছন্ন হয়ে পড়েছে।

জেলেনস্কি আরও বলেন, অনেক অঞ্চলে, ইমারজেন্সি ব্ল্যাকআউট হবে। তবে স্থিতিশীলতা পুনরুদ্ধারের জন্য আমরা সব কিছু করব। ইউক্রেনে প্রায় ৭০টি ক্ষেপণাস্ত্র ভূপাতিত হয়েছে। বিদ্যুৎ সংযোগ পুনরায় চালু করতে কাজ শুরু করা হয়েছে।

দেশটির দাবি, রুশ হামলা ইউক্রেনীয়দের বাড়িঘর ধ্বংস করে দিয়েছে এবং বহু এলাকাকে বিদ্যুৎবিহীন করে দিয়েছে। যদিও ক্ষতি মেরামতের কাজ করছে ইউক্রেন।

এদিকে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, রিয়াজান এবং সারাতোভের দুটি বিমানঘাঁটিতে ইউক্রেনের ড্রোন হামলায় ৩ জন নিহত হয়েছেন এবং আহত হয়েছেন ৪ জন। এটিকে ‘সন্ত্রাসী’ কার্যক্রম বলে আখ্যা দেওয়া হয়েছে। তবে রাশিয়ায় হামলার বিষয়ে দায় শিকার করেনি ইউক্রেন।

উল্লেখ্য, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ শুরু হয়। রাশিয়ার দাবি যদি সঠিক হয়, তা হলে এটিই রাশিয়ায় চালানো ইউক্রেনের সবচেয়ে বড় হামলা।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
আইএ/ ০৭ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button