জাতীয়

নোয়াখালী জেলা আ. লীগের সম্মেলন উদ্বোধন করলেন কাদের

নোয়াখালী, ০৫ ডিসেম্বর – নোয়াখালীতে আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন শুরু হয়েছে। সোমবার (০৫ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে সম্মেলনের মূল আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। সম্মেলন উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

ইতোমধ্যে সম্মেলন মঞ্চে উপস্থিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মো. আবদুস সবুর, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক বেগম ফরিদুন্নাহার লাইলী, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবউল আলম হানিফ, সভাপতিমণ্ডলির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রমসহ কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতারা।

এদিকে সোমবার সকাল থেকেই বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে সম্মেলনস্থলের উদ্দেশে আসা শুরু করেছেন। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে নেতাকর্মীদের ভিড় বাড়তে থাকে। পদপ্রত্যাশী নেতা ও তাদের কর্মী-সমর্থকদের পোস্টার, ব্যানার, ফেস্টুন ও শত শত তোরণে ছেয়ে গেছে পথঘাট।

কেন্দ্রীয় নেতাদের নজর কাড়তে বেগমগঞ্জের চৌমুহনী চৌরাস্তার পর থেকে সমাবেশস্থল পর্যন্ত নির্মাণ করা হয়েছে তোরণ। ইতোমধ্যে সম্মেলনের সার্বিক প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। সম্মেলনকে ঘিরে জেলার নেতাকর্মীদের মাঝে ব্যাপক উদ্দীপনা দেখা যাচ্ছে। আজকের সম্মেলনে কে হবেন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক তা নিয়ে ব্যাপক আলোচনা চলছে।

দলীয় নেতৃবৃন্দ জানান, এবারের সম্মেলনে প্রায় লক্ষাধিক লোকের সমাগম ঘটবে। সবার অংশগ্রহণে একটি ঐতিহাসিক সম্মেলন অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। নেতা নির্বাচনের ক্ষেত্রে দলীয় সিদ্ধান্ত যেটাই হোক, তারা সেটা মেনে নিয়েই রাজনীতি করবেন।

জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক এ এইচ এম খায়রুল আনম চৌধুরী ঢাকা পোস্টকে বলেন, এবারের সম্মেলন একটি ঐতিহাসিক সম্মেলন। এর মাধ্যমে নেতাকর্মীদের মাঝে প্রাণচাঞ্চল্য ফিরেছে। সম্মেলনে কয়েক লাখ লোকের সমাগম ঘটবে বলে আশা করছি।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ২০ নভেম্বর নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলন হয়েছিল। সে সময় সভাপতি হিসেবে এ এইচ এম খায়রুল আনম চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নোয়াখালী-৪ (সদর-সুবর্ণচর) আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীর নাম ঘোষণা করেছিলেন প্রধান অতিথি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

কমিটি ঘোষণার পর থেকে দীর্ঘ সময় নানা ঘাত-প্রতিঘাত, সহিংসতা ও হতাহতের পর সেই কমিটি আর পূর্ণাঙ্গ না করে দুই বছরের মাথায় ২০২১ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর খায়রুল আনম চৌধুরী সেলিমকে আহ্বায়ক, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহীন ও পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শহিদ উল্যাহ খাঁন সোহেলকে যুগ্ম-আহ্বায়ক করে ৮৭ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটি অনুমোদন দেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

সূত্র: ঢাকা পোস্ট
আইএ/ ০৫ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button