ব্যবসা

গ্রাহকের আমানতের পূর্ণ নিশ্চয়তা রয়েছে ইসলামী ব্যাংকে

ঢাকা, ০৪ ডিসেম্বর – ইসলামী ব্যাংকে গ্রাহকের আমানতের পূর্ণ নিশ্চয়তা রয়েছে জানিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. মেজবাউল হক বলেছেন, ইসলামী ব্যাংক রাষ্ট্রীয়ভাবে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যারা এ ব্যাংকে ডিপোজিট রেখেছেন তাদের আমানত সম্পূর্ণ নিরাপদ। বাংলাদেশ ব্যাংক তাদের আমানতের নিশ্চয়তা দিচ্ছে। তবে বাজারে অনেক গুজব আছে। একটা ভালো প্রতিষ্ঠানকে গুজব বা অন্য কোনোভাবে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করতে পারবে না।

রোববার (৪ ডিসেম্বর) বিকেলে বাংলাদেশ ব্যাংকের জাহাঙ্গীর আলম কনফারেন্স হলে অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশের (এবিবি) বৈঠক শেষে এক ব্রিফিংয়ে এসব কথা বলেন মেজবাউল হক।

মেজবাউল হক বলেন, ইসলামী ব্যাংকে গ্রাহকদের আমানতের পূর্ণ নিশ্চয়তা রয়েছে। তবে, সেখানে কোনো অনিয়ম বা দুর্নীতি হয়েছে কি না তার তদন্ত চলছে। তদন্তের পরই আমরা বলতে পারবো।

ভোক্তা ঋণের সর্বোচ্চ সুদের হার ১২ শতাংশ মৌখিকভাবে অনুমোদন করা হয়েছে এবিবির এমন দাবি নিয়ে তিনি বলেন, আমরা এ নিয়ে কোনো সার্কুলার করিনি। আগের নিয়মেই ভোক্তা ঋণের সুদহার রয়েছে। তবে কোনো ব্যাংক যদি ১২ শতাংশের কথা বলে থাকে তাহলে সেটা আগাম প্রস্তুতি। এটা হলে আমরা সার্কুলা দেবো।

গ্রাহক ইসলামী ব্যাংক থেকে আমানত উঠিয়ে নিচ্ছেন এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, বিশ্বাসের সেই সংকট কেটে গেছে। আমানতকারীরা পুনরায় ব্যাংকে টাকা রাখছেন। এছাড়া বাণিজ্য ঘাটতি অনেকটাই কমে এসেছে। সহসাই ডলারসহ সামষ্টিক অর্থনৈতিক সংকট কেটে যাবে।

তিনি বলেন, আজকের বৈঠকে বেশ কিছু বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এর মধ্যে অন্যতম বিষয় হলো— আসন্ন রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্যের সরবরাহ নিশ্চিত করতে আমদানি ঋণপত্র (এলসি) সহজীকরণ বিষয়। এ নিয়ে ব্যাংকগুলোর এমডিদের সঙ্গে কথা হয়েছে। রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য সরবারহ নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আমদানিতে সবধরনের সহায়তা দিতে এমডিদের নির্দেশনা দিয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, অপ্রয়োজনীয় এলসি খোলা বন্ধ রয়েছে। তবে, রমজানে প্রয়োজনীয় নিত্যপণ্যের আমদানি অর্থায়নের ক্ষেত্রে মার্জিনের হার ন্যূনতম পর্যায়ে রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

সূত্র: জাগোনিউজ
আইএ/ ০৪ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button