জাতীয়

ইনটেনজিবল কালচারে অন্তর্ভুক্ত হতে বাংলাদেশকে পাশে চায় গুয়াতেমালা

ঢাকা, ০১ ডিসেম্বর – ইউনেস্কোর ইনটেনজিবল কালচারাল হেরিটেজ কমিটির সুরক্ষার জন্য ইউনেস্কোর আন্তঃসরকারি কমিটির সদস্য হিসেবে গুয়াতেমালার ‘হলি উইক ইন গুয়াতেমালা’ মনোনয়নের জন্য ইউনেস্কোর ইনটেনজিবল কালচারাল হিউম্যানের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করার জন্য বাংলাদেশের সমর্থন চেয়েছে দেশটি।

বুধবার (৩০ নভেম্বর) পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে টেলিফোনে আলাপ করেন গুয়াতেমালার পররাষ্ট্রমন্ত্রী মারিও অ্যাডলফো বুকারো ফ্লোরেস। এ সময় গুয়াতেমালার পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ সহযোগিতা চান।

ড. মোমেন দুই দেশের মধ্যে চমৎকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের কথা বিবেচনা করে গুয়াতেমালাকে বাংলাদেশের পূর্ণ সমর্থনের আশ্বাস দেন।

দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রী টেলিফোন আলাপে দ্বিপাক্ষিক ও বহুপাক্ষিক ক্ষেত্রে পারস্পরিক সহযোগিতার বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন। বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী একই মূল্যবোধ ও নীতির ভিত্তিতে দুই বন্ধুপ্রতীম দেশের মধ্যে ক্রমবর্ধমান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের প্রতি সন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি দুই দেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও জোরদার করতে বাংলাদেশের ইচ্ছা প্রকাশ করেন।

গুয়াতেমালার পররাষ্ট্রমন্ত্রী আগামীতে বাংলাদেশের সঙ্গে আরও শক্তিশালী সম্পর্ক গড়ে তোলার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

মোমেন বাংলাদেশি নাগরিকদের জন্য গুয়াতেমালার ভিসা আবেদন প্রক্রিয়া সহজ করার প্রস্তাব দেন। পাশাপাশি তিনি দুই দেশের মধ্যে কূটনৈতিক ও অফিসিয়াল পাসপোর্টধারীদের জন্য ভিসা ছাড় চুক্তি সইয়ের সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা করেন। তিনি গুয়াতেমালার আরও বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগে উৎসাহিত করেন।

ড. মোমেন মিয়ানমারে জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের তাদের নিজ দেশে দ্রুত প্রত্যাবর্তন নিশ্চিত করে রোহিঙ্গা সংকটের টেকসই ও স্থায়ী সমাধান আনতে গুয়াতেমালার অব্যাহত সমর্থন প্রত্যাশা করেন। তিনি গুয়াতেমালার পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণও জানান।

দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রী জলবায়ু পরিবর্তন, মানুষের বাস্তুচ্যুতি, টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করার মতো বৈশ্বিক সমস্যা মোকাবিলায় বহুপাক্ষিক ফ্রন্টে একসঙ্গে কাজ করার প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেন।

সূত্র: ঢাকা পোস্ট
আইএ/ ০১ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button