জাতীয়

সমাবেশের জন্য ১০ ডিসেম্বর কেন বেছে নিল বিএনপি

ঢাকা, ৩০ নভেম্বর – বিএনপি কেন তাদের সমাবেশকে ঘিরে ১০ ডিসেম্বর বেছে নিয়েছে- এ প্রশ্ন রেখে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি কি জানে না বাংলাদেশের ইতিহাস? তিনি বলেন, ১৯৭১ সালে ১০ ডিসেম্বর বুদ্ধিজীবী হত্যার নীলনকশা বাস্তবায়নের প্রক্রিয়া শুরু হয়। বুধবার সচিবালয়ে ব্রিফিংয়ে বিএনপির উদ্দেশে এ কথা বলেন তিনি।

১০ ডিসেম্বর সাংবাদিক সিরাজ উদ্দিন হোসেন এবং সাংবাদিক সৈয়দ নাজমুল হক- এই দু’জনকে পাক হানাদার ও আলবদর বাহিনী উঠিয়ে নিয়ে যায় জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ১০ থেকে ১৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত বুদ্ধিজীবী হত্যার মতো নৃশংসতম ঘটনা বাংলাদেশে সংগঠিত হয়।

জ্ঞান, গরিমা যাদেরকে ঘিরে সেই সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, সাংবাদিক, চিকিৎসকদের ধরে নিয়ে হত্যা করা হয় স্মরণ করে দিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, সমাবেশের জন্য কেন ১০ ডিসেম্বর বেছে নিল বিএনপি এটাই এখন প্রশ্ন?

তিনি বলেন, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে কেন বিএনপি যেতে চায় না, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে পাক হানাদার বাহিনী আত্মসমর্পণ করে। সেই ১৯৭১ সালে ৭ মার্চ ভাষণ বিএনপির পছন্দ নাও হতে পারে। যদিও জাতিসংঘ স্বীকৃতি দিয়েছে সর্বকালের অন্যতম সেরা ভাষণ হিসেবে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি সমাবেশকে ঘিরে আন্দোলনের নামে যদি সহিংসতার উপাদান যুক্ত করে তাহলে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আওয়ামী লীগ সমুচিত জবাব দেবে।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ঐতিহাসিক স্থান উল্লেখ করে তিনি বলেন, যেখানে পাক হানাদার বাহিনী মুক্তি বাহিনী ও মিত্র বাহিনীর কাছে আত্মসমর্পণ করে সেই সোহরাওয়ার্দী উদ্যান কেন বিএনপির অপছন্দ। বিশাল জায়গা এখানে। আওয়ামী লীগের সব সমাবেশ ও জাতীয় সম্মেলন এখানেই হয়।

তাহলে বিএনপি কেন তাদের পার্টি অফিসের সামনে ছোট এলাকায়, যেখানে ৩৫ হাজার স্কয়ারের ফিটের মতো একটা ছোট জায়গায় তাদের সমাবেশের স্থান বেছে নিল প্রশ্ন ওবায়দুল কাদেরের।

তিনি জানতে চেয়ে বলেন, পার্টি অফিসে সমাবেশ করার জন্য বিএনপির এতো দৃঢ়তা কেন? এখানে তাদের কি কোনো বদ উদ্দেশ্য আছে? কোন মতলবে তারা এটা চায়?

আওয়ামী লীগ ১০ ডিসেম্বর সতর্ক পাহারায় থাকবে বলেও জানান ওবায়দুল কাদের।

সূত্র: সমকাল
এম ইউ/৩০ নভেম্বর ২০২২

Back to top button