দক্ষিণ আমেরিকা

ব্রাজিলের প্রেসিডেন্টের আবেদন খারিজ, দিতে হবে জরিমানা

ব্রাসিলিয়া, ২৪ নভেম্বর – ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জেইর বলসোনারো সাম্প্রতিক নির্বাচনের ফলাফলকে চ্যালেঞ্জ করে অভিযোগ দায়ের করেছিলেন। কিন্তু দেশটির নির্বাচনী আদালত তা খারিজ করে দিয়েছে।

নির্বাচনী আদালত বলসোনারোর চ্যালেঞ্জই শুধু খারিজ করেনি বরং তার দলকে ৪২ লাখ ৭০ হাজার ডলার জরিমানাও করেছে। আদালত জানিয়েছে, বাজে বিশ্বাসের ওপরভিত্তি করে এই মামলা করা হয়েছে। যতক্ষণ এই জরিমানার অর্থ পরিশোধ না করা হবে ততক্ষণ পর্যন্ত দলটির তহবিল জব্দ অবস্থায় থাকবে।

নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট বলসোনারো অল্প ব্যবধানে সাবেক প্রেসিডেন্ট লুলা ডি সিলভার কাছে হেরে যান।
গত ৩০ অক্টোবর ব্রাজিলে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। তাতে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের মধ্যদিয়ে সামান্য ব্যবধানে বিজয়ী হন বামপন্থি সিলভা। বলসোনারো চরম ডানপন্থি হিসেবে ব্রাজিলের রাষ্ট্র ক্ষমতায় আসেন, যা কয়েক দশকের মধ্যে নতুন ঘটনা।

নির্বাচনে ৫০ দশমিক ৯ শতাংশ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন লুলা। আর তার প্রতিদ্বন্দ্বী বলসোনারো পেয়েছেন ৪৯ দশমিক ১ শতাংশ ভোট। অর্থাৎ দুই শতাংশেরও কম ভোটের ব্যবধানে জিতেছেন লুলা।

গত মঙ্গলবার বলসোনারোর লিবারেল পার্টি নির্বাচনের ফলাফল চ্যালেঞ্জ করে আদালতে মামলা করে। এতে বলসোনারো দাবি করেন, কিছু ভোটিং মেশিনে ত্রুটি ছিল এবং সেসব ভোট বাতিল করতে হবে।

কিন্তু আদালত বলেছে, সবই বলসোনারোর কল্পনা। মামলার রায়ে বিচারক মোরায়েস বলেন, এ ধরনের চ্যালেঞ্জ গণতান্ত্রিক রীতি-নীতির প্রতি আঘাত। এই মামলা অপরাধী ও গণতন্ত্রবিরোধী আন্দোলনকারীদেরকে উৎসাহিত করবে।

নির্বাচনের আগে থেকেই ইভিএম নিয়ে আপত্তি ছিল বলসোনারোর। প্রাথমিক জরিপগুলো দেখাচ্ছিল, ভোটে বলসোনারো হারতে চলেছেন।

সূত্র: জাগোনিউজ
আইএ/ ২৪ নভেম্বর ২০২২

Back to top button