জাতীয়

সিলেটের পূণ্যভূমিতে বিএনপির সমাবেশ আজ

আকরাম হোসেন

সিলেট, ১৯ নভেম্বর – তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচনের দাবিসহ বিভিন্ন ইস্যুতে আজ শনিবার সিলেটে বিভাগীয় গণসমাবেশ করবে বিএনপি। নানা প্রতিকূলতার মধ্যেও ব্যাপক জনসমাগম ঘটাতে চায় দলটি। ৩৬০ আউলিয়ার পূণ্যভূমি সিলেটের আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে আনুষ্ঠানিকভাবে এ সমাবেশ শুরু হবে দুপুর ২টায়।

সকাল সাড়ে সাতটা নাগাদ কয়েক হাজার নেতাকর্মী মাঠে অবস্থান করছেন। দলীয় নেতাকর্মীরা মিছিল ও স্লোগানে-স্লোগানে সমাবেশস্থল মুখরিত করে রেখেছেন।

সিলেট বিভাগীয় সমাবেশে অতীতের সকল রেকর্ড ভাঙতে চায় দলটির নেতাকর্মীরা। বিভাগের সকল জেলা ও উপজেলা থেকে নেতা কর্মীদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষকে সমাবেশে উপস্থিত করার বিষয় জোর দেয়া হয়েছে। ধর্মঘটের কথা মাথায় রেখে নেতা কর্মীদের সমাবেশে আনার জন্য বিকল্প যানের ব্যবস্থা এবং তাদের রাত্রিযাপনের জন্য নগরীর কমিউনিটি সেন্টার ও প্রবাসীদের বাড়িসহ নানামুখী পদক্ষেপ নিয়েছে দলটি।

মূল মঞ্চ ব্যতীত বাকি তিন পাশে যে অস্থায়ী ক্যাম্প তৈরি করা হয়েছে, সেখানে প্রতিটি জেলার জন্য ভিন্ন ভিন্ন ক্যাম্প তৈরি করা হয়। যারা পূর্বে চলে এসেছেন তাদের মধ্যে অনেকেই এই ক্যাম্পে অবস্থান করেন, তাদের খাওয়া-দাওয়ার জন্য মাঠের মধ্যেই রান্নার ব্যবস্থা করা হয়। যদিও আজ সকালে এই অস্থায়ী ক্যাম্পগুলো ভেঙে ফেলা হয়েছে।

ধর্মঘটের ভোগান্তির কথা চিন্তা করে তিন থেকে চারদিন পূর্বেও বিভাগের বিভিন্ন জেলার নেতাকর্মীরা সমাবেশ স্থলে উপস্থিত হন। এর পূর্বে ধর্মঘটের কারণে ময়মনসিংহ, খুলনা, রংপুর, বরিশাল ও ফরিদপুর বিভাগীয় সমাবেশে একই চিত্র দেখা গেছে।

বিএনপি নেতাদের অভিযোগ, সিলেট বিভাগীয় সমাবেশে যাতে নেতাকর্মীদের উপস্থিতি কম হয় সেজন্য সব ধরনের প্রক্রিয়া গ্রহণ করেছে ক্ষমতাশীল দল। পুলিশ পুরনো মামলা দেখিয়ে বিভিন্ন জায়গায় নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করছে। আবার আটক করে পুরনো মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হচ্ছে।

সিলেট বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে ডক্টর অ্যাসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ (ড্যাব)। সিলেট আলিয়া মাদ্রাসার মাঠে সমাবেশের মঞ্চের ডান পাশে বিএনপিপন্থী চিকিৎসকদের এই সংগঠনটি বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দেয়ার লক্ষ্যে একটি ক্যাম্প স্থাপন করেছে। সেখান থেকে বিনামূল্যে নেতাকর্মীদের ওষুধ বিতরণ করা হচ্ছে।

গতকাল রাতেই সিলেট মহানগরীতে পৌঁছেছেন বিএনপি মহাসচিবসহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।

সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখবেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এছাড়াও বক্তব্য রাখবেন স্থায়ী কমিটির সদস্য, ভাইস চেয়ারম্যান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্যসহ কেন্দ্রীয় নেতারা।

জ্বালানি তেল ও নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি, দলীয় কর্মসূচিতে গুলি করে নেতা-কর্মীদের হত্যার প্রতিবাদ এবং নির্বাচনকালীন নির্দলীয় নিরপক্ষে সরকারের দাবিতে বিভাগীয় (দলের সাংগঠনিক বিভাগ) পর্যায়ে সমাবেশ করছে বিএনপি। ইতিমধ্যে চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ, খুলনা, রংপুর, বরিশাল, ফরিদপুর বিভাগীয় সমাবেশ সম্পন্ন করেছে দলটি।

এরই অংশ হিসেবে ২৬ নভেম্বর কুমিল্লায় এবং ৩ ডিসেম্বর রাজশাহীতে গণসমাবেশ করবে দলটি। সবশেষ ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় মহাসমাবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এই কর্মসূচি।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
আইএ/ ১৯ নভেম্বর ২০২২

Back to top button