সিলেট

আগের দিনই পূর্ণ সিলেটে বিএনপির সমাবেশস্থল

সিলেট, ১৮ নভেম্বর – সিলেটে বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশের একদিন আগেই কানায় কানায় পরিপূর্ণ হয়ে গেছে সমাবেশস্থল। সিলেটসহ অন্যান্য জেলায় বাস ধর্মঘট থাকায় নেতাকর্মীরা মোটরসাইকেল শোডাউন করে সিলেটের সমাবেশস্থলে এসে ভিড়ছেন। শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) সন্ধ্যার আগেই পরিপূর্ণ হয়ে যায় আলিয়া মাদ্রাসা মাঠ। মুহুর্মুহু স্লোগান ও মিছিলে প্রকম্পিত হয়ে উঠছে মাঠ ও আশপাশের এলাকা। দলটির নেতারা বলছেন, সব বাধা উপেক্ষা করে জনসভা রূপ নেবে জনসমুদ্রে।

শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) সরেজমিন দেখা গেছে, সিলেট নগরী পরিণত হয়েছে মিছিলের নগরীতে। আর বিএনপি নেতাকর্মীদের পদচারণায় উৎসবমুখর সিলেট সরকারি আলিয়া মাদ্রাসা মাঠ। এই মাঠেই আগামীকাল শনিবার দলটির বিভাগীয় গণসমাবেশ হবে। পরিবহন ধর্মঘটে ভোগান্তি এড়াতে আগেভাগেই চলে এসেছেন পার্শ্ববর্তী সব জেলার নেতাকর্মীরা। মাঠেই ঘুমাচ্ছেন তারা, সেখানেই চলছে খাওয়া-দাওয়া। সেই সঙ্গে কমিউনিটি সেন্টারগুলোতে চলছে রান্না।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা খন্দকার আবদুল মুক্তাদির বলেন, বিএনপির সমাবেশে জনসমাগম ঠেকাতে ধর্মঘট দেওয়া হয়েছে। কিন্তু কোনও ষড়যন্ত্রই সমাবেশে উপস্থিতি কমাতে পারবে না। যত বাধাই আসুক, সমাবেশ সফল হবে। সিলেটের সমাবেশ ইতিহাস সৃষ্টি করবে।

এদিকে, বিএনপির সমাবেশকে সামনে রেখে সিলেট বিভাগজুড়ে ধর্মঘট ডাকায় সমালোচনার মুখে পড়েছেন পরিবহন নেতারা। তবে ধর্মঘটের সঙ্গে রাজনৈতিক যোগসূত্র নেই বলে দাবি পরিবহন নেতাদের।

সিলেট জেলা বাস মালিক সমিতির সভাপতি আবুল কালাম দাবি করেন, পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে এই ধর্মঘট ডাকা হয়েছে। ধর্মঘটের সঙ্গে বিএনপির সমাবেশের কোনও সম্পর্ক নেই।

সিলেট মহানগর পুলিশ কমিশনার নিশারুল আরিফ বলেন, বিএনপির সমাবেশকে ঘিরে সিলেটে যেন অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি না হয় সে বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর রয়েছে।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন
আইএ/ ১৮ নভেম্বর ২০২২

Back to top button