উত্তর আমেরিকা

প্রথম সিনেটরসহ রেকর্ডসংখ্যক মুসলিম প্রার্থীর বিজয়

ওয়াশিংটন, ১৮ নভেম্বর – এবারের মধ্যবর্তী মার্কিন জাতীয় নির্বাচনে রেকর্ডসংখ্যক ৮২ মুসলিম প্রার্থী জয়লাভ করেছেন।

এর মধ্যে প্রথমবারের মতো একজন মুসলিম সিনেটরও নির্বাচিত হয়েছেন। এবারের মধ্যবর্তী নির্বাচনে নতুন এক ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন তুরস্ক বংশোদ্ভূত পেনসিলভানিয়ার সিনেটর প্রার্থী ডা. মেহমেদ (মোহাম্মদ) ওজ।খবর দ্য টাইমসের।

 

যুক্তরাষ্ট্রে এ যাবৎকালে মোট পাঁচজন আরব সিনেটরের দায়িত্ব পালন করলেও এ পর্যন্ত কোনো মুসলিম সিনেটর নির্বাচিত হতে পারেননি।

যে পাঁচজন আরব সিনেটর হয়েছেন, তাদের সবাই লেবানন বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক। এদের মধ্যে একজন আবার লেবানন ও ফিলিস্তিনের দ্বৈত নাগরিক। কিন্তু তারা সবাই নন-মুসলিম ছিলেন।

মার্কিন টিভির জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ওপেরা ইউনফ্রেতে ২০০৪ সালে প্রথমবার এসেছিলেন এ মুসলিম চিকিৎসক। এর পর ২০০৯ সালে তার নামে একটি অনুষ্ঠান চালু হয় টেলিভিশনে।

‘দ্য ডা. ওজ শো’ নামে এ জনপ্রিয় অনুষ্ঠানে চিকিৎসাবিষয়ক নানা পরামর্শ দেওয়া হয়।

পেনসিলভানিয়ার বর্তমান সিনেট ডেমোক্র্যাট নেতা জন ফেটারম্যানের বিরুদ্ধে লড়েছেন ডা. ওজ। তার পক্ষে ব্যাপক প্রচার চালান সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ও রিপাবলিকান নেতা ডোনাল্ড ট্রাম্প।

এ ছাড়া মাত্র ২৩ বছর বয়সি নাবিলা সাইদসহ ৮২ মুসলিম প্রার্থী মধ্যবর্তী নির্বাচনে জয়ী হয়ে যুক্তরাষ্ট্রে নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন।

নাবিলা সাইদ ভারত বংশোদ্ভূত মুসলিম নারী। ২০২০ সালে নির্বাচিত ইলহান ওমর ও রাশিদা তালিবসহ ২১ মুসলিম জনপ্রতিনিধি ছাড়াও মধ্যবর্তী নির্বাচনে আরও ১৬ জন নতুন মুসলিম প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন মার্কিন পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউস অব রিপ্রেজেনটেটিভসে।

এ ছাড়া রাজ্যসভায় নির্বাচিত হয়েছেন ৪৩ মুসলিম প্রার্থী। সব মিলিয়ে এবারের মধ্যবর্তী নির্বাচনে মুসলিম প্রার্থীদের জয়জয়কার।

সবচেয়ে আলোচিত ঘটনা ঘটেছে পেনসিলভানিয়া রাজ্যে। এখানে ডেমোক্র্যাট সিনেটরকে হারিয়ে প্রথম মুসলিম সিনেটর হিসেবে জয়লাভ করেন মুসলিম প্রার্থী ডা. ওজ।

পেনসিলভানিয়া রাজ্যে মিসর, মরক্কো ও ইরাকসহ বিভিন্ন আরব দেশ থেকে আসা ৮৪ হাজার ৪৭২ জন অভিবাসী আছেন। এদের মধ্যে ৮৩ হাজার ৮১৭ জনই মুসলিম।

এ কারণেই এ আসনে সিনেটর নির্বাচনের প্রধান নিয়ামক হয়ে উঠেন মুসলিম ভোটাররা। ২০১৬ সালে যে ৬ রাজ্যে বড় ব্যবধানে ট্রাম্প জয়ী হয়েছিলেন, পেনসিলভানিয়া ছিল এগুলোর মধ্যে অন্যতম।

কিন্তু ২০২০ সালের নির্বাচনে পেনসিলভানিয়া, অ্যারিজোনা, জর্জিয়া, মিশিগান, উইসকনসিন ও নেব্রাসকা রাজ্যে ট্রাম্পকে পরাজিত করেন বাইডেন।

১৯৫০ সালের পর এ পর্যন্ত ২৮ জন আরব আমেরিকান দেশটির এমপি নির্বাচিত হয়েছেন। কিন্তু ডা. ওজের আগে এ পর্যন্ত কোনো মুসলিম দেশটির সিনেটর নির্বাচিত হতে পারেননি।

মার্কিন টেলিভিশনের জনপ্রিয় স্বাস্থ্যবিষয়ক অনুষ্ঠানের সঞ্চালক তুরস্ক বংশোদ্ভূত পেনসিলভানিয়ার সিনেটর ডা. মেহমেদ (মোহাম্মদ) ওজ নতুন ইতিহাস গড়লেন।

সূত্র: যুগান্তর
আইএ/ ১৮ নভেম্বর ২০২২

Back to top button