জাতীয়

প্রধানমন্ত্রীর জাপান সফরে বড় উন্নয়ন সহযোগিতা চাইবে ঢাকা

ঢাকা, ১৬ নভেম্বর – দ্বিপক্ষীয় বিষয় নিয়ে বৈঠক করেছেন পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন ও ঢাকায় নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি। বুধবার দুপুরে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় এ বৈঠক হয়।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, আগামী ২৯ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জাপান সফর নিয়ে বৈঠকটি হয়েছে। সফরে বাংলাদেশ জাপানের কাছে বড় অঙ্কের উন্নয়ন সহযোগিতা ও বিনিয়োগ চাইবে। সেই লক্ষ্যে প্রকল্প প্রস্তুতির কাজ চলছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আসন্ন সফরে প্রকল্প সহায়তার বিষয়ে কাজ করছে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ। বাংলাদেশ জাপানের কাছে বড় অঙ্কের অফিসিয়াল ডেভেলপমেন্ট অ্যাসিস্ট্যান্ট (ওডিএ) ও বিনিয়োগ চাইবে। যদি এ সফরে প্রকল্প সুনির্দিষ্ট করা না যায়, তবে যাতে রাজনৈতিক প্রতিশ্রুতি ও দিকনির্দেশনা বজায় থাকে, সেই চেষ্টা হচ্ছে।

বৈঠকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আসন্ন জাপান সফর নিয়ে আলোচনা করেছি। বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর প্রোগ্রামগুলো নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

নির্বাচন নিয়ে গত সোমবার আপনার মন্তব্য সম্পর্কে বৈঠকে কোনো কথা হয়েছে কিনা- জানতে চাইলে জাপানের রাষ্ট্রদূত বলেন, না না, এ বিষয়ে কোনো আলোচনা হয়নি।

সেন্টার ফর গভর্ন্যান্স স্টাডিজের (সিজিএস) আয়োজনে সোমবার ‘মিট দ্য অ্যাম্বাসাডর’ অনুষ্ঠানে ইতো নাওকি বলেন, ‘বাংলাদেশে আগামী নির্বাচন অবাধ, স্বচ্ছ, গ্রহণযোগ্য ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন চায় জাপান। আমি শুনেছি, ২০১৮ সালের নির্বাচনে পুলিশ কর্মকর্তারা নির্বাচনের আগের রাতেই ব্যালট বাক্স ভোট দিয়ে ভর্তি করে ফেলেছে। এ ধরনের ঘটনা এর আগে অন্য কোনো দেশে ঘটেছে বলে আমি শুনিনি।’ পরে তিনি বলেন, আমি বাংলাদেশে জাপান সরকারের প্রতিনিধি। আমার বক্তব্যই জাপান সরকারের বক্তব্য।

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর এবারের জাপান সফরের মাধ্যমে দুই দেশের সম্পর্ক এক ধাপ উন্নতি হবে বলে আশা করা হচ্ছে। ২০১৪ সালে দুই দেশের সম্পর্ক সমন্বয়মূলক অংশীদারিত্বে উন্নীত হয়েছিল। এবার কৌশলগত অংশীদারিত্বে উন্নীত হবে। জাপান বাংলাদেশের কাছে সমরাস্ত্র বিক্রি করতে চায়। এরই মধ্যে দেশটি বাংলাদেশকে এ বিষয়ে প্রস্তাবও দিয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর আসন্ন সফর ঘিরে প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা খাতে সহযোগিতা বাড়াতে দুই দেশ ভার্চুয়ালি বৈঠকও করেছে। এ উপলক্ষে ঢাকা সফর করে গেছেন জাপানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দক্ষিণ-পূর্ব এবং দক্ষিণ-পশ্চিম অনুবিভাগের মহাপরিচালক আরিমা ইউতাকা।

বাংলাদেশকে সহজ ঋণ দেওয়ার ক্ষেত্রে সব দেশের চেয়ে এগিয়ে জাপান। দেশটি এখন পর্যন্ত বাংলাদেশকে ২৮ বিলিয়ন ডলারের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। প্রকল্প সময়ের আগে শেষ করে বিপুল অর্থের অর্থ বাঁচানোর নজিরও জাপানের রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর সফর কেন্দ্র করে জাপানের সঙ্গে কী কী প্রকল্পে কাজ করা যায়, তার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে বলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে।

সূত্র: সমকাল
আইএ/ ১৬ নভেম্বর ২০২২

Back to top button