আইন-আদালত

বিচারিক আদালতের রায় ও আদেশ পাওয়া যাবে অনলাইনে

ঢাকা, ১৫ নভেম্বর – এখন থেকে বিচারিক আদালতের রায় ও আদেশ পাওয়া যাবে অনলাইনে। এ ছাড়া সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের রায় ও আদেশের অনুলিপি সহজ প্রক্রিয়ায় প্রস্তুত হবে। ফলে বিচারপ্রার্থী সহজেই মামলার নকল ও সার্টিফায়েড কপি সংগ্রহ করতে পারবেন।

এ দুটিসহ সুপ্রিম কোর্টের উদ্ভাবিত ছয় কোর্ট প্রযুক্তির উদ্বোধন করেন প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী।

মঙ্গলবার বিকেলে সুপ্রিম কোর্ট অডিটোরিয়ামে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ‘সুপ্রিম কোর্ট মোবাইল অ্যাপ’, ‘মনিটরিং কমিটির অনলাইন রিপোর্টিং টুলস’, ‘আপিল বিভাগের ডিজিটাল অনুলিপি শাখা’, ‘আপিল বিভাগের প্রবেশ পাশ’, ‘অনলাইনে অধস্তন আদালতের রায় ও আদেশ প্রকাশ’ এবং ‘শিশু আদালতের রিপোর্ট এন্ট্রি প্ল্যাটফর্ম’ নামে ছয় কোর্ট প্রযুক্তি উদ্বোধন করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘আগামী দিনের বিচার ব্যবস্থায় তথ্যপ্রযুক্তির অবাধ ব্যবহার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সুপ্রিম কোর্ট অব্যাহত প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। আমাদের লক্ষ্য একটাই, স্বল্প সময়ে ও স্বল্প খরচে বিচারপ্রার্থীর ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা করা। একটি যুগোপযোগী এবং গতিশীল বিচার ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠায় আমাদের এখনই সংকল্পবদ্ধ হতে হবে।’

বিচার নিষ্পত্তির হার বেড়েছে উল্লেখ করে প্রধান বিচারপতি বলেন, চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত মামলা নিষ্পত্তির হার যেখানে ছিল শতকরা ৮৫ ভাগ, এপ্রিল থেকে জুন পর্যন্ত ছিল ১০১ ভাগ, জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তা বেড়ে হয়েছে ১০৫ ভাগ।

এ মুহূর্তে মামলা দায়ের এর তুলনায় নিষ্পত্তির হার ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে এটা অত্যন্ত আশাব্যঞ্জক।

তিনি আরও বলেন, ‘সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিগণ চলতি বছরে তাদের গ্রীষ্মকালীন এবং দীর্ঘ অবকাশ পুরোটা সময় ভোগ না করে এখন পর্যন্ত ১৩৮টি ডেথ রেফারেন্স মামলা নিষ্পত্তি করেছেন। আমার দৃঢ় আশাবাদ এ বছর আমরা সর্বোচ্চ সংখ্যক ডেথ রেফারেন্স মামলা নিষ্পত্তি করতে সক্ষম হব।’

অবকাশ ভোগ না করে দায়িত্বশীলতার পরিচয় দেওয়ায় বিচারপতিদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন প্রধান বিচারপতি।

সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. গোলাম রব্বানীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতিগণ ও আইনজীবীরা উপস্থিত ছিলেন।

বিচারিক ব্যবস্থায় সময় ও খরচ কমাতে এবং অবাধ বিচারিক তথ্যপ্রবাহ নিশ্চিতের লক্ষ্যে সম্প্রতি একটি কমিটি গঠন করে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন।

আপিল বিভাগের রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ সাইফুর রহমানকে সমন্বয়ক এবং হাইকোর্ট বিভাগের বিশেষ কর্মকর্তা মো. মোয়াজ্জেম হোছাইনকে কমিটির সভাপতি করা হয়।

এতে সদস্য হিসেবে ছিলেন আপিল বিভাগের ডেপুটি রেজিস্ট্রার এম এম মোর্শেদ, হাইকোর্ট বিভাগের সহকারী রেজিস্ট্রার রাশেদুর রহমান, মো. আব্দুল মালেক ও মো. মঈনুদ্দিন কাদির।

সূত্র: দেশ রূপান্তর
আইএ/ ১৫ নভেম্বর ২০২২

Back to top button