দক্ষিণ এশিয়া

সংঘর্ষের পর বন্ধ পাকিস্তান-আফগানিস্তান সীমান্ত ক্রসিং

ইসলামাবাদ, ১৫ নভেম্বর – পাকিস্তান ও আফগানিস্তান সীমান্তে দুই পক্ষের নিরাপত্তা বাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষের পর বাণিজ্য ও ট্রানজিট হিসাবে ব্যবহারের প্রধান একটি ক্রসিং বন্ধ রাখা হয়েছে।

আফগানিস্তানের স্পিন বোলদাক জেলাসংলগ্ন চাহমান শহরের উপ-কমিশনার আব্দুল হামিদ জেহরি বলেছেন, একদিন আগে আফগানিস্তান ও পাকিস্তান উভয় পক্ষের নিরাপত্তা বাহিনীর মধ্যে দীর্ঘক্ষণ ধরে তুমুল গোলাগুলির পর সীমান্ত ক্রসিং বন্ধ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, উভয় পক্ষেই অনেক রাত পর্যন্ত গোলাগুলি চলছে। এরপরই চাহমান শহরে পাক-আফগান ক্রসিং এবং বাণিজ্য বন্ধ হয়েছে।

জেহরি বলেন, আফগান সীমান্ত ক্রসিংয়ের দিক থেকে আসা একজন পাকিস্তানি নিরাপত্তা বাহিনীর এক সদস্যকে গুলি করলে সংঘর্ষ শুরু হয়। এতে ওই সদস্য নিহত এবং অন্যরা আহত হয়। তবে উভয়পক্ষে হতাহতের মোট সংখ্যা তৎক্ষণিকভবে স্পষ্ট হয়নি।

পাকিস্তানের স্থানীয় এক কর্মকর্তাও সোমবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর গণমাধ্যম শাখার এক মুখপাত্র বলেছেন, কী ঘটেছে তা নির্ধারণ করতে তারা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন।

সীমান্ত ক্রসিং বন্ধ থাকায় দুই পাশে পণ্য নিয়ে শতশত ট্রাক দাঁড়িয়ে আছে বলে জানিয়েছে স্থানীয়রাসহ কর্মকর্তারা।

তালেবান প্রশাসনের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র বলেছেন, দুই পক্ষের সীমান্ত বাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। তিনি বলেন, এটি ভুল বোঝাবুঝির কারণে হয়েছে এবং ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

সূত্র: যুগান্তর
এম ইউ/১৫ নভেম্বর ২০২২

Back to top button