জাতীয়

এখন কাউকে তালি দেয়া লুঙ্গি-ছেড়া স্যান্ডেল পরতে দেখা যায় না

নাটোর, ১৫ নভেম্বর – প্রধানমন্ত্রী দেশের প্রতিটি মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করেছেন উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, এখন আর কাউকে তালি দেয়া লুঙ্গি ও ছেড়া স্যান্ডেল পরতে দেখা যায় না। হতদরিদ্র মানুষ খুঁজে পাওয়া যায় না। এটা কারো জাদুতে হয়নি। এগুলো সম্ভব হয়েছে জননেত্রী শেখ হাসিনার শক্তিশালী নেতৃত্বের কারণে। বাংলাদেশ এখন ডিজিটাল হয়েছে।

মঙ্গলবার গুরুদাসপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপির ষড়যন্ত্রে উন্নয়ন থেমে থাকেনি। দেশ উন্নয়নের গতিতে চলছে। বিএনপির সময় মানুষ থাকার জায়গা পেতো না। এখন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী গৃহহীনদের জমিসহ ঘর প্রদান করেছেন।

তিনি বলেন, বিএনপি কী করেছে? বাংলা ভাইয়ের রাজত্ব কায়েম করেছে। সাধারণ মানুষের ওপর জুলুম-নির্যাতন চালিয়েছে। বাংলাদেশের পা ফাঁটা মানুষ আর কখনো বিএনপিকে ক্ষমতায় নিয়ে আসবে না।

জনগণ আওয়ামী লীগ সরকারকেই চায় উল্লেখ করে হাছান মাহমুদ বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার ওপর সাধারণ মানুষের আস্থা রয়েছে। সেই আস্থা ও ভরসা থেকেই আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে পুনরায় নির্বাচিত করবে। মানুষ বিএনপির ইতিহাস ভুলে গেছে। মানুষ বিএনপির দুঃশাসন আর অত্যাচারের দিনলিপি ভুলে গেছে। অথচ শেখ হাসিনার সরকার সেই দুঃশাসনের প্রতিশোধ নেয়নি।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, এখন শহরের মানুষ গ্রামে যেতে চায়। কারণ গ্রামকে শহরে পরিণত করেছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী।

তারেক রহমানকে ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলার প্রতীক উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিএনপি এখনো ‘বাংলা ভাই’ তৈরি করতে চায়। এখনো ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। তারেক রহমান দেশের বাইরে থেকে এসব পরিকল্পনা করছেন।

তিনি বলেন, তারেক রহমানের নির্দেশে বিএনপি দেশে আবারও অরাজকতা সৃষ্টির চেষ্টা করছে। তিনি নিজেই দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি। তাকে কীভাবে দেশে ফিরিয়ে আনা যায় সে বিষয়টিও দেখছে সরকার।

গুরুদাসপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাড. আনিসুর রহমানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক শাহনেওয়াজ আলীর সঞ্চালনায় সম্মেলন উদ্বোধন করেন নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি স্থানীয় সংসদ সদস্য মো. আব্দুল কুদ্দুস। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল, কার্যনির্বাহী সদস্য রোকেয়া সুলতানা, আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, শহিদুল ইসলাম বকুল এমপিসহ প্রমুখ। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম রমজান।

পরে সম্মেলন শেষে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ আগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে আগামী তিন বছরের জন্য গুরুদাসপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে অ্যাড. আনিসুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ধারাবারিষা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মতিনের নাম ঘোষণা করেন।

সূত্র: সমকাল
এম ইউ/১৫ নভেম্বর ২০২২

Back to top button