রূপচর্চা

ঘরোয়া উপায়ে পায়ের যত্ন নেবেন কী ভাবে?

শীত মানেই পার্টি, পিকনিক, বিয়েবাড়ি, দেদার মজা, হইহুল্লোড় এবং জমিয়ে খাওয়াদাওয়া। কিন্তু রুক্ষ, শুষ্ক শীতের আবহাওয়া ভীষণ ভাবে প্রভাব ফেলে আমাদের ত্বকেও। নির্জীব ত্বকের পাশাপাশি যা সবচেয়ে বেশি চিন্তায় ফেলে, তা হল পায়ের ফাটা গোড়ালি।

শীতের রুক্ষ আবহাওয়ায় পর্যাপ্ত যত্নের অভাবে পায়ের ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়, ফলে পা ফাটার সমস্যা দেখা যায়। সুন্দর সাজও মাটি হয়ে যায়, যদি দেখা যায় পায়ের ফাটা গোড়ালি। কিন্তু ব্যস্ততার জন্য সব সময়ে পার্লারে গিয়ে পেডিকিয়োর করানো সম্ভব হয় না। ঘরোয়া উপায়ে মিলতে পারে পা ফাটার সমস্যা থেকে মুক্তি।

কলা

বাড়িতে বেশি করে কলা কিনে এনছেন। অথচ খাওয়ার পরেও বেশ কয়েকটি বেঁচে গিয়েছে। হালকা পচন ধরতে শুরু করেছে বলে মনস্থির করলেন, সেগুলি ফেলে দিতে। ফেলে না দিয়ে বরং সেটা দিয়ে বানিয়ে নিতে পারেন গোড়ালি ফাটার প্যাক। দু’টো কলা ভাল করে চটকে থকথকে করে নিন। তার পর গোড়ালির ফাটা অংশে লাগিয়ে রাখুন। ১০ মিনিট রাখার পর ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দু’-তিন দিন করলে মিলবে সুফল।

মধু

শীতকালে ত্বকের যত্ন নিতে মধুর ভূমিকা অপরিহার্য। প্রাকৃতিক অ্যান্টিসেপ্টিক উপাদান হল মধু। গোড়ালির ফাটা ত্বক জুড়তে মধুর জুড়ি মেলা ভার। কী ভাবে বানাবেন মধু দিয়ে গোড়ালির প্যাক? মধু এবং গরম পানি একসঙ্গে মিশিয়ে একটি মিশ্রণ বানিয়ে নিন। তার পর আলতো করে গোড়ালিতে লাগিয়ে রাখুন। কয়েক মিনিট পর ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। সপ্তাহে তিন-চার দিন এটি ব্যবহার করতে পারেন।

পেট্রোলিয়াম জেলি এবং লেবুর রস

লেবুর রসে থাকা অ্যাসিড উপাদান ত্বকের বিভিন্ন সংক্রমণ দূর করতে সাহায্য করে। গোড়ালি ফাটার সমস্যা থেকে মুক্তি পেতেও ভরসা রাখতে পারেন লেবুর রসে। তবে শুধু লেবুর রস ব্যবহার করলে হবে না। সঙ্গে থাকতে পারে পেট্রোলিয়াম জেলি। ত্বকের মসৃণতা ফেরাতে এই দুইয়ের যুগলবন্দি দারুণ কার্যকরী। ১ টেবিল চামচ পেট্রোলিয়াম জেলি এবং ২ টেবিল চামচ লেবুর রস মিশিয়ে সেটি গোড়ালি ফাটার অংশে লাগান। সুফল পাবেন।

আইএ

Back to top button