লক্ষীপুর

মেঘনা নদীতে জলদস্যুদের হামলায় ৩ জেলে গুলিবিদ্ধ

লক্ষ্মীপুর, ০৯ নভেম্বর – লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলার মেঘনা নদীতে জলদস্যুদের হামলায় তিন জেলে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। এ সময় মহিউদ্দিন (৩৫) নামে এক জেলেকে ছিনিয়ে নিয়ে গেছে দস্যুরা।

মঙ্গলবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে চর আবদুল্লাহ ইউনিয়নের পশ্চিম পাশে মেঘনা নদীতে এ ঘটনা ঘটে। রাত ৪টার দিকে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে স্থানীয় ও মৎস্য আড়ৎদাররা।

আহতরা হলেন- মো. আব্বাস মাঝি (২৮), মো. ফারুক (৩৫) ও মো. ইউসুফ (২৭)। আব্বাস কমলনগর উপজেলার চরফলকন এলাকার তসির আহম্মদের ছেলে, ইউসুফ রামগতির পশ্চিম চরকলাকোপা গ্রামের মো. ইউনুসের ছেলে ও ফারুক নোয়াখালীর সুবর্ণ চরের আলমগীর ফরাজির ছেলে।

আহতরা জানায়, আব্বাস মাঝিসহ ৬ জন জেলে মেঘনায় মাছ শিকারে যায়। নদীতে জাল ফেলার প্রস্তুতি নেয়ার সময় জেলে নৌকায় দস্যুরা গুলি ছোঁড়ে। এতে ৩ জেলে গুলিবিদ্ধ হয়। এরমধ্যে আব্বাস ও ইউসুফের বাম হাতে গুলিবিদ্ধ হয়। আহত ফারুকের ডান পায়ের ওপরের অংশে ও ডান হাতের গুলি লেগেছে।

খবর পেয়ে রাত ২টার দিকে কমলনগর উপজেলার লুধুয়া মৎস্যঘাট এলাকার আড়ৎদাররা ঘটনাস্থল পৌঁছে তাদেরকে উদ্ধার করে। রাত ৪টার দিকে তাদেরকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আহত আব্বাস মাঝি বলেন, আমরা নদীতে জাল ফেলার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। হঠাৎ করে দূর থেকে আমাদের নৌকাতে জলদস্যুরা গুলি ছোঁড়ে। এতে আমরা তিনজন গুলিবিদ্ধ হয়েছি। আমাদের সহকর্মী মহিউদ্দিনকে দস্যুরা নিয়ে গেছে।

কমলনগরের লুধুয়া মাছঘাটের মৎস্য আড়ৎদার মো. লিটন জানান, মধ্যরাতে আব্বাস মাঝির নৌকাতে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে কমলনগর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আবদুল কুদ্দুছ ও আলেকজান্ডার কোস্ট গার্ডের কন্টিনজেন্ট কমান্ডারকে (সিসি) জানিয়ে ঝুঁকি নিয়ে তারা (মাছ ব্যবসায়ীরা) নিজেরাই ঘটনাস্থল থেকে আহত জেলেদের উদ্ধার করেন।

সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক এ কে আজাদ বলেন, তিনজন গুলিবিদ্ধ রোগী এসেছেন। তাদেরকে ভর্তি রাখা হয়েছে। তারা আমাদের পর্যবেক্ষণে রয়েছেন।

নৌ-পুলিশ চাঁদপুর অঞ্চলের পুলিশ সুপার (এসপি) মো. কামরুজ্জামান বলেন, ভোলার দৌলতখান এলাকার মেঘনা নদীতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। নিখোঁজ জেলেকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। গুলিবিদ্ধ জেলেদের মামলা দায়েরের পরামর্শ দেয়া হয়েছে। মামলা হলেই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
আইএ/ ০৯ নভেম্বর ২০২২

Back to top button