দক্ষিণ এশিয়া

ইমরানকে হত্যার নীলনকশা করা হয় দুই মাস আগে

ইসলামাবাদ, ০৮ নভেম্বর – পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও তেহরিক-ই-ইনসাফ পাকিস্তানের প্রধান ইমরান খান বলেছেন, তাকে হত্যার নীলনকশা দুই মাস আগেই করা হয়। এমন তথ্য তিনি গোয়েন্দা সংস্থার পক্ষ থেকে পেয়েছেন।

সোমবার সিএনএনকে দেওয়া একটি বিশেষ সাক্ষাৎকারে তিনি তার ওপর সাম্প্রতিক হামলার বিষয়ে এ কথা বলেন।

ইমরান খান বলেন, যখন আমাকে ক্ষমতাচ্যুত করা হয় তখন থেকে আমাকে হত্যার ষড়যন্ত্র করা হয়। আমাকে হত্যা করতে পারলে আমার দল ছন্নছাড়া হয়ে যাবে বলে তাদের ধারণা। কিন্তু উল্টোটা হয়ে গেছে, আমার দল এখন অনেক বেশি শক্তিশালী। অনেক সমর্থন বেড়েছে পিটিআইয়ের।

তিনি বলেন, পাকিস্তানের বর্তমান সরকার তাকে হত্যার পরিকল্পনা করেছিল। হত্যার পর ধর্মান্ধ কোনো ব্যক্তির ওপর এই খুনের দায় চাপাতে চেয়েছিল সরকার।

ইমরান খান বলেন, গোয়েন্দা সংস্থার থেকেই আমি জানতে পেরেছি, সুপরিকল্পিত ভাবে আমাকে হত্যার ছক কষা হয়েছিল। আমি আগেও সতর্ক করেছিলাম, এমন কিছু হতে পারে। আমার দল জনগণের সমর্থন পাচ্ছে। তাই এই খুনের চক্রান্ত।

সোমবার দেশের রাষ্ট্রপতির কাছে চিঠি লিখে সরকারের ক্ষমতার অপব্যবহারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আর্জি জানিয়েছেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী। তিনি রাষ্ট্রপতির উদ্দেশে চিঠিতে লিখেছেন, কোনো ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান বা রাষ্ট্র আইনকানুনের ঊর্ধ্বে হতে পারে না। আমরা দেখেছি, দেশে কীভাবে নাগরিকদের হেনস্থা করা হচ্ছে। আপনি দেশের সর্বোচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন। তাই আপনার কাছে আমার অনুরোধ, অবিলম্বে নাগরিক অধিকার রক্ষার ব্যবস্থা করুন।

বৃহস্পতিবার বিকেলে পাকিস্তানের ওয়াজ়িরাবাদে একটি র্যা লিতে যোগ দিয়েছিলেন ইমরান। তখন তাকে লক্ষ্য করে ছোড়া হয় গুলি। একটি ট্রাকের উপর দাঁড়িয়ে জনতার উদ্দেশে ইমরান হাত নাড়ছিলেন। আচমকা সেখানে গুলি চলে। ট্রাকেই পড়ে যান ইমরান। হামলাকারীকে ঘটনাস্থল থেকে গ্রেফতার করা হয়।
প্রসঙ্গত, ইমরানের ওই পদযাত্রাকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করার দাবি জানিয়ে পাক প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ় শরিফের সরকার সুপ্রিম কোর্টে গিয়েছিল। কিন্তু গত মাসে পাকিস্তানের শীর্ষ আদালত সেই দাবি খারিজ করে দেয়। পাকিস্তানের রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা বলছেন, ইমরানের ওপর হামলার নেপথ্যে কোনও ‘রাজনৈতিক কারণ’ থাকতে পারে।

সূত্র: যুগান্তর
এম ইউ/০৮ নভেম্বর ২০২২

Back to top button