জাতীয়

ডিএনসিসি কোভিড হাসপাতালে ডেঙ্গু চিকিৎসায় চালু হয়েছে ৯৮ শয্যা

ঢাকা, ২৩ অক্টোবর – রাজধানীর মহাখালীতে করোনা মহামারির সময়ে রোগীদের সেবায় গঠিত ডিএনসিসি কোভিড হাসপাতালে চালু করা হয়েছে ডেঙ্গু সেবা। আপাতত ডেঙ্গু চিকিৎসায় চালু হয়েছে ৯৮ শয্যা। প্রয়োজনে ৫০০ শয্যায় ডেঙ্গু চিকিৎসা দেওয়া যাবে হাসপাতালটিতে।

রোববার (২৩ অক্টোবর) মহাখালী ডিএনসিসি কোভিট হাসপাতাল পরিদর্শনে গিয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবীর।

ডা. আহমেদুল কবীর বলেন, ডেঙ্গু সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে। বর্তমানে হাসপাতালে চাপ অনেক বেশি। যেমন মুগদা, ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল, শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ সব জায়গায় ডেঙ্গু রোগীর চাপ বেড়েছে। কোভিডের সময় যাতে সমস্যা তৈরি না হয় সেজন্য ডিএনসিসি কোভিড হাসপাতালে রোগীদের সেবা দিয়েছি। সেই অনুসারে আমরা ডেঙ্গুর চাপ বাড়ায় এ হাসপাতালে তাদের জন্য একটা সেল খুলে সেবা দেওয়ার ব্যবস্থা করেছি।

এখনো কোনো হাসপাতালে এমন ক্রাইসিস দেখা যায়নি জানিয়ে তিনি বলেন, একেবারে শয্যা দেওয়া যাচ্ছে না এমনটা এখনো হয়নি। এমন না হলেও আমাদের প্রস্তুতি রাখা, যাতে কোনো ধরনের সঙ্কটে না পড়তে হয়। এমনও হতে পারে আমাদের হাসপাতাল রোগীর সংখ্যা কমে যেতে পারে। তখন এ আয়োজনের হয়তো দরকার হবে না। তবে যদি বৃদ্ধি পায় তাহলে সে ক্ষেত্রে সময় লেগে যাবে ব্যবস্থা নিতে। সে জন্য আমাদের এখানে ৯৮টি শয্যা তৈরি করা হয়েছে একটি তলায়।
প্রয়োজনীয় লোকবল, চিকিৎসক, যন্ত্রপাতি সব কিছু এখানে দেওয়া আছে। পর্যায়ক্রমে আমরা এখানে উন্নিত করতে পারবো প্রায় ৫০০ বেডে। সেক্ষেত্রে রোগী বৃদ্ধি পেলে হাসপাতালের পরিচালক আমাদের চাহিদা দিয়েছেন সেভাবে আমরা স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পর্যায়ক্রমে লোকবল দিবো।

তিনি আরও জানান, অক্টোবর মাসের শেষ দিক থেকে নভেম্বরে শুষ্ক মৈসুম শুরু হবে। আমরা আশা করি যদি বৃষ্টিপাত কমে যায় এ মাসের শেষ দিক থেকে রোগীর সংখ্যা কমে যাবে। তাই আমরা এসময়ে চাই না জনসাধারণ কোনো ভোগান্তিতে পড়ুক।

সূত্র: জাগোনিউজ
আইএ/ ২৩ অক্টোবর ২০২২

Back to top button