জাতীয়

‘প্রধানমন্ত্রী প্রশংসিত হওয়া মানে ১৬ কোটি মানুষের প্রশংসা’

ঢাকা, ০৯ অক্টোবর – নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্প্রীতির নেতৃত্ব দিচ্ছেন। অসাম্প্রদায়িক চেতনার নেতৃত্ব দিচ্ছেন। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করেছেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধারণ করেছেন। এসব কারণে প্রধানমন্ত্রী আজ পৃথিবীতে প্রশংসিত হচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রী প্রশংসিত হওয়া মানে বাংলাদেশের ১৬কোটি মানুষ প্রশংসিত হচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রী ধর্মের ভিত্তিতে কোনও রেখাপাত চান না, বিভক্তি চান না। তিনি ভালোবাসা তৈরি করতে চান। হানাহানি-বিরোধ থেকে মুক্ত থেকে আগামী প্রজন্মের জন্য সুখী-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে দিতে চান।

রবিবার (৯ অক্টোবর) ঢাকায় মেরুল বাড্ডায় আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহারে প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষে ‘শুভ প্রবারণা পূর্ণিমার তাৎপর্য ও বিশ্বশান্তি’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী। বাংলাদেশ বুদ্ধিস্ট ফেডারেশন এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

ঢাকা আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহারের বিহারাধ্যক্ষ সদ্ধর্মকান্ডারী শ্রীমৎ ধর্মমিত্র মহাথের এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাসুম গণি তাপস, ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর আলম, প্রবারণা পূর্ণিমা উদযাপন পরিষদের মহাসচিব অমল কান্তি বড়ুয়া, বাংলাদেশ বুদ্ধিস্ট ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ভিক্ষু সুনন্দপ্রিয় মহাথের, প্রবারণা পূর্ণিমা উদযাপন পরিষদের চেয়ারম্যান গৌতম অরিন্দম বড়ুয়া শেলু, বাংলাদেশ বুদ্ধিস্ট ফেডারেশনের সভাপতি প্রকৌশলী দিব্যেন্দু বিকাশ চৌধুরী বড়ুয়া।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু একটি সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীর হাত থেকে বাঙালি জাতিকে মুক্ত করেছিলেন এবং সম্প্রীতির বন্ধনে আবদ্ধ করে একটি জাতিসত্তা সৃষ্টি করেছিলেন। যেই জাতিসত্তা সৃষ্টির সঙ্গে সব ধর্ম-বর্ণের মানুষ যুক্ত ছিল। তারা রক্ত দিয়ে এই বাংলাদেশের নাম লিখিয়েছে। শুধু একটি অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু সেটায় নেতৃত্ব দিয়েছেন। বঙ্গবন্ধু আমাদের একটি সংবিধান দিয়েছেন। আমাদের ৭২ এর সংবিধান রয়েছে; যে সংবিধান সম্প্রীতির কথা বলে। যে সম্প্রীতি নিয়ে আমাদের মহান নেতা বঙ্গবন্ধু সোনার বাংলা গড়ার কাজ শুরু করেছিলেন। স্বাধীনতার মাত্র সাড়ে তিন বছরের মাথায় সপরিবারে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করা হয়েছিল। এর পরে বাংলাদেশের সম্প্রীতি বিনষ্ট হয়ে গেছে। অসাম্প্রদায়িকতা বিনষ্ট হয়ে গেছে। এদেশকে বিভাজন করা হয়েছে ধর্ম দিয়ে, সমাজ দিয়ে, অর্থ দিয়ে। বিভক্ত করা হয়েছে। কিন্তু এদেশ এগিয়ে যেতে পারেনি। এদেশ অন্ধকার থেকে অন্ধকারে তলিয়ে গেছে। প্রধানমন্ত্রী অসাম্প্রদায়িক চেতনা নিয়ে দেশকে উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন
আইএ/ ০৯ অক্টোবর ২০২২

Back to top button