ইউরোপ

ক্রিমিয়া সেতুতে বিস্ফোরণের ঘটনায় নিহত ৩

মস্কো, ০৮ অক্টোবর – ক্রিমিয়া ও রাশিয়ার মধ্যে সংযোগ স্থাপনকারী একমাত্র রেলসেতুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনায় তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। আজ শনিবার রাশিয়ার তদন্তকারী কমিটি এ তথ্য নিশ্চিত করেছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা।

রাশিয়ার তদন্তকারী কমিটির বিবৃতিতে বলা হয়, ধারণা করা হচ্ছে সেতুর যেখানে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে সেখানের একটি গাড়ির যাত্রী ছিল নিহতরা। নিহতদের একজন নারী ও একজন পুরুষ। তাদের পরিচয় শনাক্তের চেষ্টা চলছে। যে গাড়ির মাধ্যমে বিস্ফোরণ হয়েছে সেটির মালিকের পরিচয় এরই মধ্যে বের করা হয়েছে।

এর আগে শনিবার ভোরে শক্তিশালী বিস্ফোরণে মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয় ক্রিমিয়া সেতু। দুই ভাগে বিভক্ত সেতুর সড়ক অংশের দুটি খণ্ড বিস্ফোরণে ধসে পড়ে। আগুন লাগে রেল অংশে থাকা তেলবাহী ট্যাংকারে। রাশিয়া বলছে, একটি গাড়িবোমা ব্যবহার করে এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে।

ক্রিমিয়ার এই সেতুটি ইউক্রেনীয় বাহিনীর জন্য একটি মূল লক্ষ্য বলে মনে করা হয়। ২০১৪ সালে মস্কোর সঙ্গে সংযুক্ত হয় ক্রিমিয়া। এর চার বছর পর ২০১৮ সালে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন সেতুটি উদ্বোধন করেন। সেতুটি ইউক্রেনের নিয়ন্ত্রিত অঞ্চল থেকে ১০০ মাইলেরও বেশি দূরে।

সে সময় এক বিস্ফোরক বিশেষজ্ঞ জানান, সম্ভবত ক্ষেপণাস্ত্রের কারণে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেনি। তিনি বলেন, ‘নিচ থেকে একটি সুপরিকল্পিত হামলাই এর কারণ হতে পারে।’

ইউক্রেনের দক্ষিণাঞ্চলে যুদ্ধের রসদ পাঠানোর জন্য এই সেতু খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ইউক্রেনের সঙ্গে যুদ্ধ শুরুর পরেও গত সাত মাসে এই সেতুতে কোনো হামলার ঘটনা ঘটেনি। তবে এতে হামলা হলে প্রতিশোধ নেওয়া হবে বলে জানিয়েছিল মস্কো।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা জানায়, সেতুটিতে বিস্ফোরণের ঘটনা রাশিয়ার জন্য বড় ধাক্কার। সেখানে কী ঘটেছে তা বোঝার চেষ্টা করছে মস্কো। তবে এ ঘটনায় ইউক্রেনীয় কর্মকর্তারা উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বার্তা দিলেও দায় স্বীকার করেনি ইউক্রেন।

সূত্র: আমাদের সময়
এম ইউ/০৮ অক্টোবর ২০২২

Back to top button