জাতীয়

দেশে ৩০ বছর নারী প্রধানমন্ত্রী, তবুও নারীরা নিরাপদ নয় : রব

ঢাকা, ০৭ অক্টোবর – জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব বলেছেন, ১৯৯১ সাল থেকে ২০২২ পর্যন্ত প্রায় ৩০ বছর সরকারের প্রধানমন্ত্রী নারী, তবু নারীরা কোথাও নিরাপদ নয়। নারী প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন সর্বশেষ ইডেন কলেজের ঘটনায় নারীদের মর্যাদা যেভাবে ধুলোয় মিশিয়ে দেওয়ার মহড়া হয়েছে, তা আধুনিক বিশ্বে কল্পনারও অযোগ্য। তিনি বলেন, ‘এত বড় ভয়ংকর ঘটনা ঘটে গেলেও সরকার ন্যূনতম পদক্ষেপ গ্রহণ করার প্রয়োজনীয়তাও অনুভব করেনি।’

শুক্রবার (৭ অক্টোবর) জাতীয় সমাজতান্ত্রিক নারী জোটের প্রতিনিধি সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে আ স ম আবদুর রব এসব কথা বলেন। সভায় সভাপতিত্ব করেন নারী জোটের সভাপতি তানিয়া রব। রাজধানীর উত্তরায় রবের বাসভবনে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন নারী জোটের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সৈয়দা ফাতেমা হেনা, ফারজানা দিবা, সুরাইয়া তাবাসসুম, তাসলিমা আক্তার, ফারিয়া আলম ঊষা, ইয়াসমিন দিলশাদ, মাহমুদা চৌধুরী শাহিন, সাফিকা আফরোজা তালুকদার, রেহানা সুলতানা, কৃপা ভূঁইয়া ও শারমিন সুলতানা প্রিয়াঙ্কা প্রমুখ।

আ স ম রব বলেন, “অবস্থাদৃষ্টে মনে হয়, বাংলাদেশে ‘প্রধানমন্ত্রীর পদ নারীদের জন্য সংরক্ষিত।’ তারপরও রাজনৈতিক, সামাজিক ও পারিবারিকসহ নারীরা সব ক্ষেত্রেই বৈষম্যের শিকার। নারীর নাগরিক অধিকার ও আইনি সমতা আজও নিশ্চিত হয়নি।”

‘পরিবার ও সমাজে শুধু মানুষ হিসেবে নারীকে গণ্য করার সংস্কৃতিও বিকশিত হয়নি। নারীর প্রতি সব প্রকার বৈষম্য বিলোপে সিডও একমাত্র আন্তর্জাতিক চুক্তি বা সনদ। কিন্তু তার অধিকাংশই বাংলাদেশে বাস্তবায়িত হচ্ছে না’, মনে করেন রব।

এই বৈষম্যমূলক সমাজ ব্যবস্থার পরিবর্তন, সংবিধান সংস্কার, বিদ্যমান স্বৈরাচারের পতন এবং রাষ্ট্র রূপান্তরের লক্ষ্যে ‘দ্বিতীয় মুক্তিযুদ্ধে’ দেশের নারী সমাজকে অংশগ্রহণের জন্য রব উদাত্ত আহ্বান জানান।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন
আইএ/ ০৭ অক্টোবর ২০২২

Back to top button