মিডিয়া

হোটেলে আটকে সাংবাদিকের পরিবারকে ‌‌‘লাঞ্ছনা’, ৯৯৯-এ কল করে উদ্ধার

খুলনা, ০৪ অক্টোবর – খুলনা শহরের অভিজাত হোটেল ডিএস প্যালেসে উত্তম সরকার নামে এক সাংবাদিক ও তার পরিবারের সদস্যদের লাঞ্চনার অভিযোগ উঠেছে।

সোমবার (৩ অক্টোবর) রাতে এই ঘটনা ঘটে। পরে জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-কল করলে পুলিশ এসে তাদের উদ্ধার করে। উত্তম সরকার স্থানীয় পত্রিকা দৈনিক অনির্বাণের সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার।

তিনি বলেন, ‌‘গতরাতে ২০ জনের খাবারের জন্য আগে থেকেই হোটেল ডিএস প্যালেসে বুকিং করি। সেই মোতাবেক পূজামণ্ডপ ঘুরে রাতে হোটেলে খেতে যাই। খাওয়ার সময় বিদ্যুৎ চলে যায়। হোটেলের লোকজনকে জেনারেটর দিতে বললে তা নষ্ট বলে জানায়। কাস্টমাররা নিজেদের মোবাইল ফোসের আলো জ্বেলে খেতে থাকেন। এ সময় মোমবাতি চাইলে তা দিতেও গড়িমসি করে তারা। এ নিয়ে বাগবিতণ্ডার এক পর্যায়ে হোটেল মালিক ও তার কর্মচারীরা ২-৩টি প্লেট ভেঙে ফেলেন। এরপর দরজা আটকে পুুরুষ, নারী ও শিশুদের মারধর করেন। নারী ও শিশুরা এ ঘটনায় ভীত হয়ে কান্নাকাটি শুরু করেন।’

উত্তম সরকার আরও বলেন, ‘আমি ৯৯৯-এ কল করে পুলিশে ঘটনা জানাই। এরপর খুলনা থানার সেকেন্ড অফিসার টিপু সুলতানকেও ফোনে জানাই। তিনি পুলিশ পাঠিয়ে রাত ২টার দিকে আমাদের উদ্ধার করেন। এ সময় আমিও ঘটনাস্থল হোটেল যাই। খেতে যারা গিয়েছিল তাদের ১৫ জনই নারী ও শিশু। এর মধ্যে রয়েছেন আমার মা, দুই বোন, ভগ্নিপতি, চার ভাগনে-ভাগনি, আমার স্ত্রী, দুই মেয়ে, ছোট ভাইয়ের স্ত্রী, তার দুই শিশু, আমার এক আত্মীয়ের স্ত্রী ও দুই শিশু, আমার ছোট ভাই ও দুই মামাতো ভাই।’

এ বিষয়ে হোটেল ডিএস প্যালেস ম্যানেজার মো. নাসিম বলেন, ‘রাতে আমি হোটেলে ছিলাম না। তাই এ ধরনের ঘটনা নজরে আসেনি। বিষয়টি খোঁজ-খবর নিয়ে দেখছি।’

খুলনা সদর থানার সেকেন্ড অফিসার টিপু সুলতান জানান, খবর পেয়ে থানা থেকে ফোর্স পাঠিয়ে ভুক্তভোগীদের উদ্ধার করা হয়। তবে এ সময় কাউকে আটক করা হয়নি। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন
আইএ/ ০৪ অক্টোবর ২০২২

Back to top button