জীবন যাত্রা

নোবেল পুরস্কার সম্পর্কে অজানা তথ্য

অক্টোবর শুরু মানেই নোবেল পুরস্কারের মৌসুম। ছয় দিনে এই মূল্যবান পুরস্কার ঘোষণা করা হবে। বিশ্বের যেকোনো প্রান্তের নাগরিক এই পুরস্কার পেতে পারেন। এর মাধ্যমে বিশ্বে কিছু নতুন মানবাধিকারকর্মী, বিজ্ঞানী, লেখক, অর্থনীতিবিদদের নাম এলিট শ্রেণিতে যুক্ত হবে।

২০২২ সালের জন্য সোমবার (৩ অক্টোবর) চিকিৎসাশাস্ত্রে নোবেল বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হবে। ১০ অক্টোবর অর্থনীতিতে বিজয়ীর নাম ঘোষণার মাধ্যমে কার্যক্রম শেষ হবে।

তবে নোবেল পুরস্কার নিয়ে মানুষের আগ্রহের কোনো শেষ নেই। কীভাবে, কোন প্রক্রিয়ায় বা কারা এই পুরস্কার পাবেন সে সম্পর্কে রয়েছে নানা কৌতূহল।

নোবেল পুরস্কারের প্রবর্তক কে?

সুইডেনের বিজ্ঞানী আলফ্রেড নোবেলের ১৮৯৫ সালে করে যাওয়া একটি উইল অনুযায়ী নোবেল পুরস্কার প্রচলন করা হয়। প্রথম পুরস্কার দেওয়া শুরু হয় ১৯০১ সালে। সেময় সারা পৃথিবীর বিভিন্ন ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানকে সফল, অনন্যসাধারণ গবেষণা, উদ্ভাবন ও মানবকল্যাণমূলক কার্যক্রমের জন্য পাঁচটি বিষয়ে পুরস্কার প্রদান করা হয়। বিষয়গুলো হলো পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, চিকিৎসাশাস্ত্র, সাহিত্য ও শান্তি। যদিও অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার দেওয়া শুরু হয় ১৯৬৯ সাল থেকে।

প্রত্যেক পুরস্কারের জন্য সনদ ও সোনার মেডেলসহ এক কোটি ক্রোনা বা নয় লাখ মার্কিন ডলার দেওয়া হয়। ১৯০১ থেকে ২০২১ সালের মধ্যে এখন পর্যন্ত ৬০৯ বার এ পুরস্কার দেওয়া হয়েছে।

কারা আগেই জানেন বিজয়ীদের নাম?

শুধু বিচারকরাই জানেন কারা পেতে যাচ্ছেন নোবেল পুরস্কার। পুরস্কার ঘোষণার আগে অন্য কারো পক্ষে বিজয়ীদের নাম জানা কোনোভাবে সম্ভব হয় না। এমনকি বিজয়ীদের নাম ঘোষণার আগে ইঙ্গিত দেওয়া থেকেও বিরত থাকেন বিচারকরা। তবে এ বিষয়ে কিছু জল্পনা থাকে সব সময়।

কে প্রার্থী মনোনয়ন দিতে পারে?

বিশ্বজুড়ে হাজার হাজার মানুষ নোবেল পুরস্কারের জন্য মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারেন। এর মধ্যে থাকতে পারে বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক, আইন প্রণেতা, আগের নোবেল বিজয়ীও। তাছাড়া কমিটির সদস্যরাও আবেদন করতে পারেন। যদিও ৫০ বছরের আগে এসব মনোনয়নের বিষয়ে তথ্য প্রকাশ করা হয় না।

কোথা থেকে পুরস্কার দেওয়া হয়?

শুধু শান্তিতে নোবেল পুরস্কার প্রদান করা হয় অসলো, নরওয়ে থেকে। বাকি ক্ষেত্রে স্টকহোম, সুইডেনে এই পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

জানা গেছে, মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) ঘোষণা করা হবে পদার্থবিজ্ঞানে নোবেল বিজয়ীর নাম। পরের দিন ঘোষণা করা হবে রসায়নে নোবেল বিজয়ীর নাম। এরপর ৬ অক্টোবর ঘোষণা করা হবে সাহিত্যে ও ৭ অক্টোবর শান্তিতে নোবেল বিজয়ীদের নাম। মাঝে দুদিনের বিরতি দিয়ে সোমবার (১০ অক্টোবর) শেষদিন ঘোষণা করা হবে অর্থনীতিতে নোবেলজয়ীর নাম।

এ বছর নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য ৩৪৩ জন প্রার্থী রয়েছেন, যার মধ্যে ২৫১ জন ব্যক্তি ও ৯২টি সংস্থা ।

আইএ/ ০২ অক্টোবর ২০২২

Back to top button