ইউরোপদক্ষিণ এশিয়া

জাতিসংঘে রাশিয়ার বিপক্ষে গেল না ভারত

নয়াদিল্লি, ০১ অক্টোবর – ইউক্রেনে হামলা চালিয়ে দখলে নেওয়া চারটি অঞ্চল নিজ ভূখণ্ডে সংযুক্ত করার ঘোষণা দিয়েছে রাশিয়া। রাশিয়ার এ ঘোষণায় বেজায় চটেছে পশ্চিমা দেশগুলো। গতকাল শুক্রবার এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে একটি প্রস্তাব উত্থাপন করে যুক্তরাষ্ট্র ও আলবেনিয়া।

তাতে ভেটো দেয় রাশিয়া।

তবে মস্কোর মিত্র তথা কৌশলগত অংশীদার হিসেবে পরিচিত চীন এই প্রস্তাবে ভেটো ক্ষমতা প্রয়োগ করেনি। বরং ভোট দেওয়া থেকে বিরত ছিল দেশটি।
অন্যদিকে পশ্চিমা দেশগুলোর চাপের মুখেও জাতিসংঘে ‘বন্ধু’ রাশিয়ার পাশেই দাঁড়িয়েছে ভারত। জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে যুক্তরাষ্ট্র ও আলবেনিয়ার প্রস্তাবে ইউক্রেনের অধিকৃত অঞ্চলে ‘অবৈধ গণভোটের’ নিন্দা করা হয়।

নিয়মমাফিক প্রস্তাবের পক্ষে বা বিপক্ষে ভোটপর্ব শুরু হয় জাতিসংঘের ১৫ সদস্য দেশের (৫ স্থায়ী সদস্য) মধ্যে। মার্কিন চাপ উড়িয়ে দিয়ে ভোটদানে বিরত থাকে ভারত। ভোট দেয়নি চীন, ব্রাজিল। মোট ১০টি দেশ রাশিয়াবিরোধী প্রস্তাবে ভোট দিয়েছে। তবে স্বাভাবিকভাবেই প্রস্তাবটি পাস হয়নি।

ইউক্রেনের কাছ থেকে দখলে নেওয়া চারটি অঞ্চলকে শুক্রবার আনুষ্ঠানিকভাবে রাশিয়ায় অন্তর্ভুক্ত করার ঘোষণা দেন পুতিন। গতকাল এক দীর্ঘ ভাষণে তিনি বলেছেন, সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন পুনর্গঠন করা আমাদের লক্ষ্য নয়। কিন্তু মানুষের ইচ্ছা ছিল, রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত হয়ে রুশ নাগরিক হিসেবে পরিচিত হওয়া। সে জন্যই আমরা গণভোটের মাধ্যমে দোনেৎস্ক, লুহানস্ক, খারসন, জাপোরিঝিয়া-এই চারটি অঞ্চলকে রাশিয়ার অন্তর্ভুক্ত করলাম।

এ বিষয়ে উত্থাপিত প্রস্তাবের পরিপ্রেক্ষিতে জাতিসংঘে ভারতের প্রতিনিধি রুচিরা কম্বোজ জানান, ইউক্রেনের ঘটনাপ্রবাহ সম্প্রতি যে খাতে বইছে, তাতে গভীরভাবে চিন্তিত ভারত। নয়াদিল্লি বরাবরই শান্তি ও সম্প্রীতির পক্ষে রয়েছে বলেও জানান তিনি।

বিশ্লেষকদের মতে, মোদি সরকার ‘ইন্ডিয়া ফার্স্ট’ নীতি মেনেই এই কাজ করছে। নিন্দা প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দিয়ে সময়ের পরীক্ষিত ‘বন্ধু’ রাশিয়াকে চীনের আরো কাছাকাছি ঠেলে দিতে চায় না নয়াদিল্লি।

এ ছাড়া এটা যুক্তরাষ্ট্রের জন্য কড়া বার্তা। কারণ, সম্প্রতি এফ-১৬ যুদ্ধবিমানের জন্য পাকিস্তানে বিরাট আর্থিক প্যাকেজ দিয়েছে বাইডেন প্রশাসন। আর সেটাই ভালোভাবে নেয়নি ভারত।

সূত্র: কালের কণ্ঠ
এম ইউ/০১ অক্টোবর ২০২২

Back to top button