বিচিত্রতা

রেলস্টেশনের এত বড় নাম!

আকার-আয়তনে বিশ্বের অন্যতম বড় একটি দেশ ভারত। তাদের রয়েছে বিস্তৃত রেলওয়ে নেটওয়ার্ক, যা বিশ্বের মধ্যে চতুর্থ বৃহত্তম। ভারতজুড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা রেলওয়ে স্টেশনগুলোর নাম কিন্তু বেশ বৈচিত্র্যপূর্ণ। এর মধ্যে কয়েকটির আকার এত বড় যে, একবার শুনে মনে রাখাই দায়! উচ্চারণও বেশ কঠিন।

ভারতের সবচেয়ে বড় নামের স্টেশন কোনটি, এ নিয়ে যথেষ্ট বিভ্রান্তি রয়েছে। তবে এর উত্তর দিতে গেলে প্রথমেই চলে আসে ‘ভেঙ্কটানরসিমহারাজুভারিপেটা’ (Venkatanarasimharajuvaripeta) স্টেশনের নাম। অনেকেই মনে করেন, এটিই হয়তো দেশটির দীর্ঘতম নামের স্টেশন। এর নামের বানানে ২৮টি ইংরেজি বর্ণ রয়েছে। তার ওপর স্থানীয় লোকজন স্টেশনটির নামের সঙ্গে ‘শ্রী’ উপসর্গ যোগ করলে তা আরও বড় শোনায়।

অন্ধ্র প্রদেশে অবস্থিত, তামিলনাড়ুর সীমান্ত সংলগ্ন এই রেলওয়ে স্টেশনটি একসময় ভারতের দীর্ঘতম নামের রেলওয়ে স্টেশন ছিল ঠিকই। কিন্তু ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে লড়াই করা এক সৈনিকের সম্মানে ২০১৫ সালে বেঙ্গালুরু স্টেশনের নতুন নাম রাখা হয় ‘ক্রান্তিভিরা সাঙ্গোল্লি রায়ান্না বেঙ্গালুরু সিটি’ স্টেশন। তাতে পিছিয়ে পড়ে ‘ভেঙ্কটানরসিমহারাজুভারিপেটা’।

এরপর ২০১৭ সালে মুম্বাইয়ের ছত্রপতি শিবাজি টার্মিনাস রেলওয়ে স্টেশনের নামের সঙ্গে ‘মহারাজ’ যোগ করা হয়। তখন ‘ছত্রপতি শিবাজি মহারাজ টার্মিনাস’ রেলওয়ে স্টেশনটি ইংরেজি ৩৩টি বর্ণ নিয়ে ভারতের অন্যতম বৃহত্তম নামের রেলওয়ে স্টেশন হয়ে ওঠে।

তবে এখন এগুলোর কোনোটিই নামের দৈর্ঘ্যের দিক থেকে প্রথম স্থানে নেই। ২০১৯ সালে চেন্নাই রেলওয়ে স্টেশনের নামকরণ করা হয় তামিলনাড়ুর কিংবদন্তি অভিনেতা ‘ড. এম জি রামচন্দ্রন’-এর নামে। তখন সেটির নতুন নাম হয় ‘পুরাচি থালাইভার ড. এম.জি. রামচন্দ্রন সেন্ট্রাল রেলওয়ে স্টেশন’। নামের বানানে ইংরেজি ৫৭ বর্ণ নিয়ে এটিই এখন ভারতের দীর্ঘতম নামের রেলস্টেশন।

সবশেষ আরেকটি তথ্য, বিশ্বের মধ্যে দীর্ঘতম নামের স্টেশন কিন্তু ভারতে কেন, এশিয়াতেই নেই। এটি অবস্থিত ওয়েলসে। স্টেশনের নামটি সম্ভবত বাংলায় উচ্চারণ সম্ভবই নয়। বিশ্বাস না হলে নিজেই দেখে নেন- Llanfairpwllgwyngyllgogerychwyrndrobwllllantysiliogogogoch.

এম ইউ

Back to top button