ইউরোপ

ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ আরও বিপজ্জনক পর্যায়ে

কিয়েভ, ০১ অক্টোবর – চলতি বছরের গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক অভিযানের ঘোষণা দেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এরপর আজ শনিবার পর্যন্ত টানা ২২০ দিনের মতো চলছে দেশ দুইটির সংঘাত। অল্প কয়েকদিনের মধ্যে ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভ দখল করে সেখানে পুতুল সরকার বসানোর বাসনা নিয়ে পুতিন ইউক্রেনে যে আগ্রাসন শুরু করেছেন তা এখন পর্যন্ত অধরা। উল্টো ইউক্রেনে রুশ বাহিনী যে তুমুল জনবল সংকটে ভুগছে তা ক্রমেই স্পষ্ট হয়ে উঠছে। এই নিয়ে পুতিন সম্প্রতি আংশিক সেনা সমাবেশের ঘোষণা দিয়েছেন।

এর মাধ্যমে রিজার্ভ তিন লাখ সেনাকে ইউক্রেনে বিশেষ অভিযানে পাঠানো হবে বলে রাশিয়ার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে। ইউক্রেনে যুদ্ধের মোড় বদলাতে দেশটির চার অঞ্চলে গণভোটের আয়োজন করে সেখানকার রুশপন্থী কর্তৃপক্ষ। ইতোমধ্যে সম্পন্ন হওয়া গণভোটে বিপুল ভোটে জয় পেয়েছে বলে দাবি রাশিয়ার।

এরই প্রেক্ষিতে গতকাল শুক্রবার রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেনের কাছ থেকে অবৈধভাবে দখল করা আরও চারটি অঞ্চলকে রুশ ফেডারেশনের অংশ হিসেবে ঘোষণা দেন। মস্কোর রেড স্কয়ারে আয়োজিত অনুষ্ঠানে পুতিন বলেন, আজ থেকে রাশিয়ার সঙ্গে আরও চারটি অঞ্চল যোগ হয়েছে।

রুশ এই প্রেসিডেন্ট বলেছেন, যে চারটি ইউক্রেনীয় অঞ্চল, অর্থাৎ পূর্বে লুহানস্ক ও দোনেতস্ক এবং দক্ষিণে জাপোরিঝজিয়া ও খেরসনকে তিনি রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত করার পরিকল্পনা করছেন, রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত হওয়ার প্রশ্নে সেই অঞ্চলের মানুষ তাদের রায় জানিয়ে দিয়েছেন। পুতিন আরও বলেন, এই ফলাফল আমাদের জানা, ভালভাবেই জানা, মানুষ তাদের সিদ্ধান্ত নিয়েছে, এটা তাদের একমাত্র সিদ্ধান্ত।

রাশিয়ার এমন সিদ্ধান্তে ইউক্রেনে যুদ্ধের তীব্রতা আরও ভয়াবহ পথে যাবে বলে আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের। ইতোমধ্যে যুক্তরাষ্ট্রসহ জাতিসংঘ প্রধান পুতিনের এমন পদক্ষেপের কড়া নিন্দা জানিয়েছেন। এছাড়া পশ্চিমাদের সামরিক জোটের প্রধান জানিয়েছেন, যুদ্ধ শুরুর পর থেকে রাশিয়ার এই পদক্ষেপ সংঘাতের তীব্রতা আরও বাড়ালো।

ইউক্রেনে প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেন, ইউক্রেনের কোনো ভুখণ্ডই রাশিয়ার হতে দেবে না তারা। এমনি ২০১৪ সালে রাশিয়ার দখলে যাওয়া ক্রিমিয়া অঞ্চলও পুনর্দখল করবেন।

এর আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাইডেন বৃহস্পতিবার বলেছেন, নেভার নেভার নেভার, অর্থাৎ কোনো মতেই তারা এটা মেনে নেবেন না। জাতিসংঘের মহাসচিবও বলেছেন, ইউক্রেনের এই ভূমি দখল অবৈধ।

এছাড়া শনিবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাইডেন বলেছেন, ইউক্রেনের চার অঞ্চল নিজেদের করে নেওয়ার ঘোষণার পর ভ্লাদিমির পুতিনের বেপরোয়া হুমকিতে ভয় পাবে না যুক্তরাষ্ট্র।

গতকাল শুক্রবার ইউক্রেনের চার অঞ্চল রুশ ভুখণ্ডের বলে ঘোষণা দেওয়ার পর পুতিন হুমকি দিয়েছেন, এসব অঞ্চল রক্ষায় প্রয়োজনে তারা পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার করবেন। পুতিন ঘোষণা দেন, এসব অঞ্চল রাশিয়ার চিরকালের থাকবে। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমাদেশগুলো জানিয়েছে, তারা এটি হতে দেবে না। তাই ইউক্রেনে যুদ্ধ আরও বিপজ্জনক পর্যায়ে বলে বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা।

এই নিয়ে প্রেসিডেন্ট বাইডেন আরও বলেন, পুতিন আমাদের ভয় দেখাতে পারবেন না। আমেরিকা এবং তার মিত্র এসবে ভয় পাচ্ছে না। এরপর বাইডেন বলেন, ন্যাটো ভূখণ্ডের প্রতি ইঞ্চি রক্ষা করতে আমেরিকা তার মিত্রদের নিয়ে পুরোপুরি প্রস্তুত। পুতিন, আমি যা বলছি তাতে ভুল বুঝবেন না, প্রতি ইঞ্চি মানে প্রতি ইঞ্চি।

সূত্র: আমাদের সময়
এম ইউ/০১ অক্টোবর ২০২২

Back to top button