দক্ষিণ এশিয়া

সভাপতি পদে লড়বেন না, সনিয়ার কাছে ক্ষমা চাইলেন গেহলট

নয়া দিল্লি, ২৯ সেপ্টেম্বর – ভারতের পুরোনো রাজনৈতিক দল কংগ্রেসের সভাপতি পদে লড়তে যাচ্ছেন না রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট। দিল্লিতে কংগ্রেসের অন্তর্বর্তীকালীন সভাপতি সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে দেখা করার পর সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে এ তথ্য জানালেন তিনি।

রাজস্থানে মুখ্যমন্ত্রীর পদ নিয়ে টানাপড়েন ও দলের সভাপতি নির্বাচন নিয়ে অভ্যন্তরীণ কোন্দলের বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনার জন্য অশোক গেহলটকে বৈঠকের জন্য ডেকে ছিলেন সোনিয়া গান্ধী। বৈঠকে যোগ দেওয়ার জন্য বৃহস্পতিবারই দিল্লি পৌঁছে যান গেহলট।

সোনিয়ার বাসভবন থেকে বেরিয়ে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে গেহলট বলেন, সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে আমার বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। গত দু’দিনে যা হয়েছে, তাতে আমরা প্রত্যেকেই অবাক হয়েছি। এই ঘটনায় এই বার্তা গেছে যে, আমি মুখ্যমন্ত্রী হতে চাই। আমি সোনিয়া গান্ধীর কাছে ক্ষমা চেয়েছি। দলের সভাপতি হওয়ার বিষয়ে তার যে কোনো মোহ নেই সে কথা বোঝাতে গেহলট জানান, তিনি কোচিতে গিয়ে রাহুল গান্ধীকে দলের সভাপতি হওয়ার অনুরোধ জানান। কিন্তু রাহুল তাতে সম্মত হননি বলেও দাবি তার।

একই সঙ্গে গেহলট স্পষ্ট জানিয়ে দেন, দলের সভাপতি নির্বাচনে তিনি লড়ছেন না। তার কারণ ব্যাখ্যা করে রাজস্থানের তিন বারের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, এই পরিবেশে নৈতিক দায়িত্ববোধ থেকেই আমি দলের সভাপতি নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিচ্ছি। সংবাদমাধ্যমের পক্ষ থেকে গেহলটকে প্রশ্ন করা হয়, তিনিই কি রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে কাজ চালিয়ে যাবেন? প্রশ্নের প্রেক্ষিতে তার সংযমী উত্তর, সেটা আমি ঠিক করার কেউ নই। কংগ্রেসের সভাপতি সোনিয়া গান্ধীই সেটা ঠিক করবেন।

এক টানা ১৯ বছর সভানেত্রীর দায়িত্ব পালন করার পর ছেলে রাহুলের হাতে ভার সঁপেছিলেন সোনিয়া গান্ধী। ঘটনাচক্রে রাহুলের পদত্যাগের পর আবার সোনিয়াকেই অন্তর্বর্তী সভানেত্রীর ভার নিতে হয়। এখনো তিনি সেই পদই সামলাচ্ছেন। ১৭ অক্টোবর হবে কংগ্রেসের সভাপতি নির্বাচন।

সূত্র: জাগোনিউজ
আইএ/ ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২

Back to top button