জাতীয়

এই সরকার নিজেদের অপকর্ম-কুকর্মের দায় অন্যের ঘাড়ে চাপাতে চায় : রিজভী

খুলনা, ২৮ সেপ্টেম্বর – বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, শেখ হাসিনার সরকার যেনতেন ভাবে ক্ষমতা ধরে রাখতে চায়। ৩১ জুলাই থেকে এ পর্যন্ত পুলিশের গুলিতে বিএনপির চার নেতা-কর্মী নিহত হয়েছেন। তিনি বলেন, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের সংগ্রামে অংশ নেয়া মানুষকে আর গুলি করে হত্যা করা যাবে না। বাঁশের লাঠিতে জাতীয় পতাকা ধারণ করে শাসক দলের সব ব্যারিকেড ভেঙ্গে বিএনপির আন্দোলন এগিয়ে যাবে।

আজ বুধবার খুলনা প্রেসক্লাবে আয়োজিত বিএনপির নেতা আজিজুল হাসান দুলুর স্মরণ সভায় রুহুল কবির রিজভী এসব কথা বলেন। মহানগর ও জেলা বিএনপি যৌথভাবে স্মরণ সভা আয়োজন করে।

রিজভী বলেন, এই সরকার মিথ্যাচারী। তারা নিজেদের অপকর্মের দায় অন্যের ঘাড়ে চাপাতে চায়। ইডেন কলেজে কলঙ্কজনক ইতিহাস জন্ম দিয়েছে তারা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদল নেতাকর্মীদের ওপর হামলা হয়েছে। মুন্সিগঞ্জে পুলিশের গুলিতে শাওন নিহত হলে এসপি বলেছেন ঠেলাঠেলিতে মারা গেছে। গণমাধ্যমের মাথার ওপর ধারালো তরবারি ঝুলছে। গুম, খুন, অপহরণ, হামলা মামলা করে আর আন্দোলন দমন করা যাবে না।
মহানগর বিএনপির আহবায়ক শফিকুল আলম মনার সভাপতিত্বে সমাবেশে মুখ্য আলোচক ছিলেন কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল। মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব শফিকুল আলম তুহিন ও জেলা বিএনপির সদস্য সচিব মনিরুল হাসান বাপ্পীর সঞ্চালনায় বক্তৃতা করেন বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) অনিন্দ্য ইসলাম অমিত, বিএনপি নেতা কামরুজ্জামান রতন, মীর সরাফত আলী সপু, আজিজুর বারী হেলাল, জয়ন্তকুমার কুন্ডু, কৃষিবীদ শামীমুর রহমান শামীম, শেখ মুজিবর রহমান, সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, সাঈদ সোহরাব, জেলা বিএনপির আহবায়ক আমীর এজাজ খান, রকিবুল ইসলাম বকুল, তারিকুল ইসলাম জহীর ও আবু হোসেন বাবু।

বক্তারা বলেন, আজিজুল হাসান দুলুর মতো একজন নিবেদিতপ্রাণ কর্মীর অকালে চলে যাওয়া হৃদয় বিদারক।

সূত্র: বিডি প্রতিদিন
আইএ/ ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

Back to top button