এশিয়া

সেনাবাহিনীতে কৃষকদের নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে: পুতিন

মস্কো, ২৭ সেপ্টেম্বর – রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, রুশ সশস্ত্রবাহিনীর সেনা সমাবেশে কৃষকদের নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। মঙ্গলবার রুশ কর্মকর্তাদের এক বৈঠকে তিনি একথা বলেছেন। এর মাধ্যমে তিনি ইঙ্গিত দিয়েছেন ২০২৩ সালে খাদ্যশস্য উৎপাদন ঝুঁকিতে পড়তে পারে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এখবর জানিয়েছে।

বিশ্বের বৃহত্তম গম রফতানিকারক দেশ রাশিয়া। শরৎকাল কৃষকদের ব্যস্ত মৌসুম। এই সময় তারা আগামী বছরের জন্য গম ফলায়। একই সময়ে তারা সয়াবিন ও সূর্যমুখীও চাষ করে। ইতোমধ্যে বৃষ্টির কারণে শীতকালীন গমের উৎপাদন অনেক বিলম্বিত হয়েছে।

টেলিভিশনে প্রচারিত বৈঠকে পুতিন বলেন, আমি আঞ্চলিক প্রধান ও কৃষি সংস্থার প্রধানদের প্রতি কিছু বলতে চাই। আংশিক সেনা সমাবেশের অংশ হিসেবে কৃষকদেরও সেনাবাহিনীতে নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। তাদের পরিবারকে অবশ্যই সহযোগিতা করতে হবে। এই বিষয়ে বিশেষ মনোযোগ দেওয়ার জন্য আপনাদের নির্দেশ দিচ্ছি।

বুধবার দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর রাশিয়ায় প্রথমবার সেনা সমাবেশের ঘোষণা দেন পুতিন। ইউক্রেনে চলমান যুদ্ধের মধ্যেই এই সেনা সমাবেশের নির্দেশ দেন তিনি। এই ঘোষণার পর সেনাবাহিনীতে যোগ দিতে সক্ষম মানুষেরা সীমান্তের দিকে ছুটতে শুরু করেছে। বেশ কয়েকটি স্থানে এর প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছেন। কয়েকশ’ মানুষকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

রুশ কর্মকর্তারা বলছেন, সেনা সমাবেশ কর্মসূচির আওতায় ৩ লাখের বেশি রুশ নাগরিককে সেনাবাহিনীতে নিয়োগ দেওয়া হবে।

বৈঠকে পুতিন আরও বলেছেন, ২০২২ সালে রেকর্ড মাত্রায় ১৫০ মিলিয়ন টন খাদ্যশস্য উৎপাদনের রেকর্ডের দিকে যাচ্ছে রাশিয়া। এর মধ্যে ১০০ মিলিয়ন টন গম রয়েছে।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন
আইএ/ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২

Back to top button