জাতীয়

রেলে পণ্য পরিবহনের ভাড়া বাড়ানোর চিন্তা

ঢাকা, ২১ সেপ্টেম্বর – ট্রেনের ভাড়া বাড়ানোর পক্ষে নন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তবে লোকসান কমাতে রেলে পণ্য পরিবহনে ভাড়া বাড়ানোর প্রয়োজনীয়তার বিষয়টি সরকারপ্রধানের দৃষ্টিতে আনার সুপারিশ করেছে রেলপথ মন্ত্রণালয়-সংক্রান্ত স্থায়ী কমিটি।

গতকাল মঙ্গলবার সংসদ ভবনে এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে কমিটির ২২তম সভা অনুষ্ঠিত হয়। রেলের আয় বাড়াতে প্রস্তাব চেয়েছিল সংসদীয় কমিটি। গত ৪ আগস্ট ২১তম সভায় ট্রেনের যাত্রীদের ভাড়া বৃদ্ধির প্রস্তাব করে রেলওয়ে। তবে একই সভায় রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন জানান, গত জুনে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ট্রেনের ভাড়া বৃদ্ধির প্রস্তাব করা হয়েছিল। আপাতত ভাড়া বৃদ্ধির বিষয়ে দ্বিমত করেন সরকারপ্রধান।

রেল সূত্র জানিয়েছে, মঙ্গলবারের সভায় কমিটিকে জানানো হয়, এক টন পণ্য পরিবহনে কিলোমিটারপ্রতি ব্যয় ৮ টাকা ৯৪ পয়সা। বিপরীতে রেলের আয় ৩ টাকা ১৮ পয়সা। এতে বিপুল লোকসান হচ্ছে। পণ্য পরিবহনে কীভাবে, কত শতাংশ ভাড়া বাড়ানো যায়, তা প্রস্তাব করতে বলেছে সংসদীয় কমিটি। এরই মধ্যে তিনটি প্রস্তাব তৈরি করা হয়েছে। তা সমন্বয় করে কমিটির পরবর্তী সভায় উপস্থাপন করা হবে।

সংসদ সচিবালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, বেসরকারি খাতে ইজারা দেওয়া ৪০টি ট্রেন মেয়াদ শেষে নতুন করে লিজ না দিতে সুপারিশ করেছে স্থায়ী কমিটি। সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনার পরিচালিত ৪টি ট্রেনকে নমুনা ধরে মাসিক আয় ও পরিচালন ব্যয়ের তুলনামূলক হিসাব আগামী বৈঠকে উপস্থাপনের সুপারিশ করা হয়।

বৈঠকে জানানো হয়, জুন থেকে আগস্ট- এই তিন মাসে রেলওয়েতে ৩১টি দুর্ঘটনা ঘটেছে। ১৬টির তদন্ত হয়েছে। বাকিগুলোর তদন্ত প্রক্রিয়াধীন। বাড়তি দামে টিকিট বিক্রি করায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বুকিং সহকারীকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

সভায় কমিটির সদস্য রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন, আসাদুজ্জামান নূর, শফিকুল ইসলাম শিমুল, শফিকুল আজম খান, সাইফুজ্জামান, এইচ এম ইব্রাহিম, গাজী মোহাম্মদ শাহ নওয়াজ ও নাদিরা ইয়াসমিন জলি অংশ নেন।

সূত্র: সমকাল
আইএ/ ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২

Back to top button