জাতীয়

গণফোরামের প্রধান উপদেষ্টা পদ থেকে ড. কামালকে অব্যাহতি

ঢাকা, ২১ সেপ্টেম্বর – গণফোরামের প্রধান উপদেষ্টা পদ থেকে ড. কামাল হোসেনকে অব্যাহতি দিয়েছে মোস্তা মোহসীন মন্টুর নেতৃত্বাধীন গণফোরাম। আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের আবদুস সালাম হলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেওয়া হয়।

সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে গণফোরাম সভাপতি মোস্তফা মোহসীন মন্টু বলেন, গণফোরাম জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষায় সবচেয়ে গুরুত্ব দিয়ে ভোটাধিকার ফিরিয়ে আনতে এবং মুক্তিযুদ্ধের সবচেয়ে বড় লক্ষ্য গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় নির্দলীয়-নিরপেক্ষ সরকারের অধীন অবাধ সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ থেকে জনতার পক্ষে সংগ্রাম চলবে।

গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক ড. আবু সাইয়িদ বলেন, কোনো দলে বা রাষ্ট্রে যখন কর্তৃত্ববাদী কেউ থাকে গণতন্ত্র সেখানে অনুপস্থিত হয়ে যায়। এরাই সবচেয়ে বেশি গণতন্ত্র, গণতন্ত্র বলে মিথ্যা বুলি আউড়ায়। গণফোরাম দেশে সত্যিকারের কার্যকরী গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় অবিচল থাকবে।

গণফোরাম নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট এ কে এম জগলুল হায়দার আফ্রিক সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। তিনি বলেন, ‘আজ আমাদের জাতীয় জীবনের চরম সংকটময় কাল। যখন জাতীয় ঐক্য অপরিহার্য, সেই মুহূর্তে ড. কামাল হোসেন ও মো. মিজানুর রহমান গত ১৭ তারিখে জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ঘোষিত কমিটি সম্পূর্ণ গঠনতন্ত্র পরিপন্থি ও অগণতান্ত্রিক।’

আফ্রিক বলেন, গণফোরামের অচলাবস্থা নিরসনে এবং দেশব্যাপী সুসংগঠিত করার লক্ষ্যে গত বছরের ৩ ডিসেম্বর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে ড. কামাল হোসেনের অনুমতি ও সমর্থন নিয়ে অত্যন্ত সফলভাবে গণফোরামের ৬ষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিল অধিবেশনে প্রায় ৩০০০ কাউন্সিলর ও ডেলিগেটস উপস্থিতিতে এবং বাংলাদেশের স্বীকৃত প্রায় ১০টি রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দের অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অত্যন্ত সফলভাবে সম্পন্ন হয়। উক্ত অধিবেশনে সর্বসম্মতিক্রমে গণফোরামের সাবেক সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তফা মোহসীন মন্টুকে সভাপতি ও সাবেক নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরীকে সাধারণ সম্পাদক করে ১৫৭ সদস্য বিশিষ্ট গণফোরাম কেন্দ্রীয় কমিটি সর্বসম্মতিক্রমে নির্বাচিত হয়।

জগলুল হায়দার আফ্রিক বলেন, ‘আমরা গভীর উদ্বেগ ও বিস্ময়ের সঙ্গে দেখলাম যে, জাতীয় প্রেসক্লাবে গণফোরামের সঙ্গে দীর্ঘদিন সম্পর্কহীন, দল থেকে পদত্যাগকারী, বিভেদ সৃষ্টিকারী ও নিষ্ক্রিয় কিছু ব্যক্তি নিয়ে গণফোরাম নাম দিয়ে ড. কামাল হোসেনকে সভাপতি ও মো. মিজানুর রহমানকে সাধারণ সম্পাদক করে ১০১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করা হয়। ড. কামাল হোসেনকে গত ৩ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত কাউন্সিল অধিবেশনে তাকে প্রধান উপদেষ্টা ও মো. মিজানুর রহমানকে সভাপতি পরিষদের সদস্য নির্বাচিত করা হয়। কিন্তু তারা কেউ গণফোরামের নির্বাচিত কমিটি থেকে পদত্যাগ না করে স্বঘোষিত একটি গঠনতন্ত্র পরিপন্থি ও উপ-দলীয় কমিটির যথাক্রমে ড. কামাল হোসেন সভাপতি ও মো. মিজানুর রহমান সাধারণ সম্পাদক হয়। এমনকি ঘোষিত তথাকথিত কমিটি নির্বাচন কমিশনের সঙ্গেও প্রতারণা করেছে।’

আফ্রিক বলেন, ‘এমতাবস্থায় গতকাল (১৯ সেপ্টেম্বর) অনুষ্ঠিত গণফোরামের কেন্দ্রীয় কমিটির সভায় সর্বসম্মতিক্রমে ড. কামাল হোসেনকে দলের প্রধান উপদেষ্টার পদ থেকে অব্যহতি দেওয়া হল। মো. মিজানুর রহমানকে সভাপতি পরিষদের সদস্য পদসহ দলের সাধারণ সদস্য পদ থেকেও বহিষ্কার করা হলো।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি মহিউদ্দিন আবদুল কাদের, সভাপতি পরিষদ সদস্য আব্দুল হাসিব চৌধুরী, বীর মুক্তিযোদ্ধা খান সিদ্দিকুর রহমান, জ্যেষ্ঠ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব খান ফারুক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লতিফুল বারী হামিম প্রমুখ।

সূত্র: আমাদের সময়
আইএ/ ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২

Back to top button