জানা-অজানা

পাঁচ বছরে বিশ্বে মিলিয়নিয়ার বাড়বে ৪০ শতাংশ

করোনা মহামারি ও রাশিয়া ইউক্রেন যুদ্ধকে কেন্দ্র করে বিশ্বজুড়ে উচ্চ মূল্যস্ফীতি দেখা যাচ্ছে। আর মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে বিশ্বের কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলো সুদের হার বাড়িয়ে যাচ্ছে। দেখা দিয়েছে বিশ্বজুড়ে মন্দার আশঙ্কা। এতে অনেকেই হারাচ্ছে সম্পদ। কিন্তু এমন পরিস্থিতির মধ্যেও আগামী পাঁচ বছরে বিশ্বে মিলিয়নিয়ারের সংখ্যা ৪০ শতাংশ বাড়বে। মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) ব্লুমবার্গের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

মঙ্গলবার প্রকাশিত ক্রেডিট সুইস গ্রুপ এজি-এর গ্লোবাল ওয়েলথ রিপোর্ট ২০২২ অনুযায়ী, ২০২৬ সালের মধ্যে ৮ কোটি ৭৫ লাখের বেশি লোক কমপক্ষে ১০ লাখ ডলারের মালিক হবে, যা ২০২১ সালের ছয় কোটি ২৫ লাখ মিলিয়নিয়ার থেকে বেশি। পূর্বাভাসটিতে বলা হয়েছে, উদীয়মান অর্থনীতির দেশগুলোতে সংখ্যা দ্রুত গতিতে বাড়বে। তাছাড়া চীনে এই সময়ে মিলিয়নিয়ারদের সংখ্যা বেড়ে দ্বিগুণ হবে।

এদিকে চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসে বিশ্বের ৫০০ ধনী এক দশমিক চার ট্রিলিয়ন ডলারের সম্পদ হারিয়েছে। তবে প্রতিবেদনে দেখা গেছে, পরিস্থিতি দ্রুত স্বাভাবিক হচ্ছে। বিশেষ করে উন্নয়নশীল বাজারে। সুইস ব্যাংক ধারণা করছে, করোনা সম্পর্কিত কঠোর লকডাউন ও সাম্প্রতিক অর্থনৈতিক চাপ সত্ত্বেও চীনে ধনীদের সংখ্যা ব্যাপক হারে বাড়বে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধকে কেন্দ্র করে বিপত্তি বেড়েছে, কারণ মূল্যস্ফীতি এখন বড় সমস্যা। তারপর বৈশ্বিক সম্পদ বাড়তে থাকবে। চীনের পরিবারগুলোর সম্পদ যুক্তরাষ্ট্রের মতোই হবে।

ক্রেডিট সুইসের পূর্বাভাসে বলা হয়, ২০২৬ সালের মধ্যে বেসরকারি সম্পদ ৩৬ শতাংশ বেড়ে ১৬৯ ট্রিলিয়ন ডলারে দাঁড়াবে। তাছাড়া ২০২৪ সালের মধ্যে তাদের প্রত্যেকের সম্পদ বৈশ্বিকভাবে ২৮ শতাংশ বেড়ে এক লাখ ডলার ছাড়াবে।

আইএ/ ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২

Back to top button