আইন-আদালত

ড্যাপের গেজেটের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট

ঢাকা, ১১ সেপ্টেম্বর – নতুন ডিটেইল্ড এরিয়া প্ল্যান (ড্যাপ) অনুমোদন দিয়ে জারি করা প্রজ্ঞাপনের বিষয়ে রিট হয়েছে। রিটে ২৩ আগস্ট জারি করা প্রজ্ঞাপন স্থগিত এবং ২০১০ সালের ড্যাপ চালুর আর্জি জানানো হয়।আজ রোববার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এই রিট করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইউনুছ আলী আকন্দ।

রিটে রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব, গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব, রাজউকের চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্টদের বিবাদী করা হয়েছে। আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে, গত ২৩ আগস্ট নতুন ড্যাপের অনুমোদন দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে সরকার। একই প্রজ্ঞাপনে ২০১০ সালে পাস হওয়া ড্যাপ রহিত করা হয়। তবে ২০১০ সালের ড্যাপের আলোকে যেসব কার্যক্রম হয়েছে তা বৈধ বলে ঘোষণা করা হয়েছে।

নতুন ড্যাপে তলাভিত্তিক ভবন নির্মাণের নিয়ম বাতিল করা হয়েছে। এখানে এলাকাভিত্তিক ফ্লোর এরিয়া রেশিও (এফএআর) নির্ধারণ করা হয়েছে। মূলত এফএআরের মাধ্যমে একটি প্লটে কতো আয়তন বা উচ্চতার ভবন নির্মাণ করা হবে, তা নির্ধারণ করা হয়। তাই যেসব এলাকায় নাগরিক পরিষেবার মান ভালো, পার্ক বা উন্মুক্ত স্থান আছে, প্লটের পাশে প্রশস্ত রাস্তা আছে, সেসব এলাকায় এফএআরের মান বেশি ধরা হয়েছে। আর যেসব এলাকায় রাস্তা সরু ও নাগরিক সেবার মান তুলনামূলক খারাপ, সেসব এলাকায় এফএআরের মান কম ধরা হয়েছে। এই ড্যাপ ২০৩৫ সাল পর্যন্ত কার্যকর থাকবে।

চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে গত ২২ আগস্ট পর্যন্ত ৯ হাজার ৬৫৬টি ভবনের নির্মাণ অনুমোদন দিয়েছে রাজউক। ২৩ আগস্ট নতুন ড্যাপ পাস হওয়ার আগপর্যন্ত আরও শতাধিক আবেদন জমা পড়ে ছিল।

এসব আবেদনের কী হবে জানতে চাইলে রাজউকের পরিচালক (উন্নয়ন নিয়ন্ত্রণ-১) মো. মোবারক হোসেন বলেন, ২৩ আগস্ট নতুন ড্যাপের প্রজ্ঞাপন হওয়ার আগপর্যন্ত রাজউকে ভবনের নির্মাণ অনুমোদন সংক্রান্ত যেসব আবেদন জমা পড়েছে, সেগুলো ২০০৮ সালের বিধিমালা অনুযায়ী নিষ্পত্তি করা হবে। আর ২৩ আগস্টের পর যেসব আবেদন জমা পড়েছে, সেগুলো নতুন ড্যাপ অনুসারে নিষ্পত্তি হবে।

সূত্র: আমাদের সময়
এম ইউ/১১ সেপ্টেম্বর ২০২২

Back to top button